ছুটির আবহেই বাতিল উত্তরবঙ্গ যাওয়ার একাধিক ট্রেন! দেখে নিন তালিকা, নাহলেই বাড়বে বিপদ

বাংলাহান্ট ডেস্ক : ট্রেন বাতিলের ফলে ফের একবার যাত্রী দুর্ভোগের আশঙ্কা। রেল সূত্রে খবর, একাধিক ট্রেন বাতিল হতে চলেছে হাওড়া ডিভিশনে নন ইন্টারলকিং কাজের জন্য। বাতিল হওয়া ট্রেনের তালিকায় রয়েছে ডুয়ার্সগামী কাঞ্চনকন্যা এক্সপ্রেসও। এই খবর সামনে আসার পর অনেকের মাথায় হাত পড়েছে। ট্রেন বাতিলের ফলে বিশেষ করে ক্ষতিগ্রস্ত হবে পর্যটন শিল্প।

   

ট্রেন বাতিলের খবর সামনে আসার পর পর্যটকরা হোটেল বুকিং ক্যানসেল করে দিচ্ছেন। বেশকিছু বিকল্প ট্রেন থাকলেও সেগুলির পরিষেবা ভালো নয়, আবার ট্রেনের টিকিট পাওয়াও অনেক সময় সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। এই সব কথা ভেবে বহু পর্যটক বাতিল করছেন তাদের ট্যুর। এই পরিস্থিতিতে অনেক পর্যটক ডুয়ার্সগামী না হওয়ার সিদ্ধান্তই নিয়েছেন। রেলের এই সিদ্ধান্তের ফলে ক্ষোভ ছড়িয়েছে পর্যটন ব্যবসায়ীদের মধ্যেও।

আরোও পড়ুন : ‘আমাকে চো** বলেছো, ভগবান তোমাকে ক্ষমা করবে না’, গম্ভীরকে সরাসরি হুমকি শ্রীশান্তের

রেল সূত্রে জানা গেছে, শিয়ালদা থেকে আলিপুরদুয়ার জংশনগামী কাঞ্চনকন্যা এক্সপ্রেস বাতিল করা হয়েছে ১০ থেকে ২২ ডিসেম্বর পর্যন্ত। যেহেতু এই ট্রেন যাবেনা শিয়ালদা থেকে, সেহেতু বাতিল থাকবে ডাউন লাইনের ট্রেনও। এই খবর সামনে আসার পর বহু পর্যটক ও ট্রেন যাত্রীদের মধ্যে শুরু হয়েছে অসন্তোষ। যে সকল ট্রেন যাত্রীদের টিকিট কনফার্ম ছিল তারাও সমস্যার সম্মুখীন হলেন।

আরোও পড়ুন : বড় বিপদ! সূর্যে পৃথিবীর মতো ৬০ টি বড়বড় গর্তের খোঁজ পেলেন বিজ্ঞানীরা, হু হু করে বেরোচ্ছে সৌর তরঙ্গ

যাত্রীরা বলছেন, রেলের এই কাজ কিছুদিন পরেও করা যেত। এখন শীতকাল ও পর্যটনের মরশুম। এছাড়াও এই ট্রেন অন্য রুটে ঘুরিয়ে দিলেও সমস্যা হত না। কিন্তু হঠাৎ করে ট্রেন বাতিল করে কেন অনিশ্চয়তার মুখে ফেলা হল যাত্রীদের? এই ব্যাপারে উপযুক্ত ব্যাখ্যা অবশ্য রেল কর্তৃপক্ষ দিতে পারেনি। 

উল্টে জানা যাচ্ছে ট্রেন বাতিলের সময়সীমা কাজের উপর নির্ভর করে আরো দীর্ঘ হতে পারে। উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক সব্যসাচী দে  জানিয়েছেন, লাইন মেরামতি ও রক্ষণাবেক্ষণের কাজ রয়েছে পূর্ব রেলের এলাকায়। কলকাতা থেকে উত্তরবঙ্গ চলাচলকারী আরো ৪১ টি ট্রেনের রুট বদল করা হয়েছে।

up train loot

আলিপুরদুয়ার বা ডুয়ার্স যাওয়ার জন্য দার্জিলিং মেল, সরাইঘাট এক্সপ্রেসের পরই পর্যটকদের পছন্দের ট্রেন হল কাঞ্চনকন্যা এক্সপ্রেস। পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা ও ভালো পরিষেবার জন্য এই ট্রেনটি বহু যাত্রীর কাছে প্রথম পছন্দ। ডুয়ার্স ও পার্বত্য অঞ্চলে ডিসেম্বর মাসে সবথেকে বেশি সংখ্যক পর্যটক আসেন। বহু যাত্রীর হোটেল-রিসর্ট বুকিং, গাড়ি বুকিং সম্পন্ন হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু রেলের এই সিদ্ধান্তের ফলে বেজায় সমস্যায় পড়েছেন পর্যটক থেকে পর্যটন ব্যবসায়ী সকলে।