এবার বীরভূমে যেতে পারবেন আরোও আরামে! এই ৪ জোড়া ট্রেনের রেক পরিবর্তন করল পূর্ব রেল

বাংলাহান্ট ডেস্ক : ভারতের পরিবহণ মানচিত্রে রেলের অবদান অনস্বীকার্য। যাত্রীদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে একাধিক পদক্ষেপ গ্রহণ করছে রেলও। রেলের এই সিদ্ধান্তের ফলে উপকৃত হচ্ছেন লোকাল থেকে এক্সপ্রেস ট্রেনের যাত্রীরা। এবার বীরভূমের রেলযাত্রীদের জন্য বড় সুখবর আসছে রেলের পক্ষ থেকে।

   

এবার যাত্রীদের সফরের অভিজ্ঞতা আরো আরামদায়ক করতে ভারতীয় রেল বিশেষ উদ্যোগ নিল। পূর্ব রেলের উদ্যোগে এবার  ৪ জোড়া ট্রেনের রেক বদল করা হল। একটি বিজ্ঞপ্তিতে পূর্ব রেল জানিয়েছে, যে চার জোড়া ট্রেনের রেক বদল করা হয়েছে সেগুলি আগে আইসিএফ রেক দিয়ে চলত। যাত্রীদের স্বাচ্ছন্দ্যের কথা মাথায় রেখে এবার এই চার জোড়া ট্রেন চালানো হবে মেমু রেক দিয়ে।

আরোও পড়ুন : ভোটের মুখেই ১০০ দিনের কাজের মজুরি বাড়াল কেন্দ্র! কত পাবেন বাংলার শ্রমিকরা?

আইসিএফ রেকের তুলনায় মেমু রেকে  যাত্রীরা আগের থেকে আরও বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করবেন। রেল সূত্রে খবর, বর্ধমান-রামপুরহাট-বর্ধমান প্যাসেঞ্জার, রামপুরহাট-বারহাওরা-রামপুরহাট প্যাসেঞ্জার, রামপুরহাট-জেসিডিহি-রামপুরহাট প্যাসেঞ্জার এবং রামপুরহাট-সাহেবগঞ্জ-রামপুরহাট প্যাসেঞ্জার ট্রেনের রেক বদল করা হয়েছে।

আরোও পড়ুন : নদী থেকে মিলছে সোনা, রুপো, তামা..! অবাক করা কাণ্ড জলপাইগুড়িতে…

নতুন ধরনের এই রেকে থাকবে সিসিটিভি ক্যামেরা। যাত্রীদের জন্য রয়েছে আরামদায়ক সিট। হেলান দেওয়ার জন্য থাকবে গদি। মডিউলার বায়ো টয়লেট থাকবে নতুন এই মেমু রেকে। একদিকে এই ধরনের রেকগুলি যেমন যাত্রীদের বাড়তি স্বাচ্ছন্দ্য প্রদান করবে, তেমনই পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

indian railways to introduce revolutionary new lhb push pull rake sets for passenger trains check how it works

 

রেক বদলের সাথে সাথে এই ট্রেনগুলির নম্বর বদল করা হয়েছে আপাতত। নতুন ট্রেন নম্বরগুলি হল- ০৩০৭৯/০৩০৮০ বর্ধমান-রামপুরহাট-বর্ধমান প্যাসেঞ্জার, ০৩৪১১/০৩৪১২ রামপুরহাট-বারহাওরা-রামপুরহাট প্যাসেঞ্জার, ০৩০৮১/০৩০৮২ রামপুরহাট-জেসিডিহি-রামপুরহাট প্যাসেঞ্জার এবং ০৩৪০৭/০৩৪০৮ রামপুরহাট-সাহেবগঞ্জ-রামপুরহাট প্যাসেঞ্জার।

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর