গাড়ি নিয়ে ৪০০ ফুট গভীর খাদে পড়লেন ব্যক্তি! iPhone-র এই ফিচার বাঁচিয়ে দিল প্রাণ

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক : গোটা বিশ্ব জুড়ে রমরমিয়ে ব্যবসা করছে Apple iPhone। এই মোবাইলিটি যেমন তার প্রিমিয়াম ফিচার বা পারফরম্যান্সের জন্য বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয়, তেমনই দুর্ঘটনা থেকে বাঁচতেও সাহায্য করে। অ্যাপল আইফোনের কারণে জরুরি অবস্থা থেকে বেঁচে ফিরেছেন বা অসুস্থতায় সাহায্য পেয়েছেন–এমন খবর আমরা আকছার শুনে থাকি। সম্প্রতি আবারও এক ব্যক্তি বিপদ থেকে মুক্তি পেল এই আধ খাওয়া আপেলের লোগোযুক্ত ফোনের দৌলতে।

জেনে অবাক হবেন যে, প্রায় ৪০০ ফুট গভীর খাদে পড়ে যাওয়া এক ব্যক্তির জীবন বাঁচিয়েছে iPhone 14। সম্প্রতি এই অবাক করা ঘটনাটি ঘটেছে, গত শুক্রবার সন্ধ্যায় লস অ্যাঞ্জেলেসে। জানা যাচ্ছে, মাউন্ট উইলসন এলাকার এক ব্যক্তি গাড়ি দুর্ঘটনার সম্মুখীন হন। এবং তার গাড়ি সোজা ৪০০ ফুট গভীর খাদে পড়ে যায়। সাহায্য চাওয়ার জন্য ফোন-ও করতে পারছিলেননা।

তবে তার সঙ্গে ছিল লেটেস্ট মডেলের আইফোন। Iphone 14 মডেলে থাকা ক্র্যাশ ডিটেকশন এবং এমার্জেন্সি এসওএস (SOS) ফিচারের কারণে বেঁচে ফিরতে পেরেছেন তিনি। জানিয়ে দিই আইফোনে থাকে ক্র্যাশ ডিটেকশন ফিচার। এতে যখন কোথাও দুর্ঘটনা ঘটে তখন সেই ফিচার অটোমেটিক সক্রিয় হয়ে যায়। দুর্ঘটনাস্থল শনাক্ত করে জরুরী মেসেজ চলে যায় পাশাপাশি এলাকায়।

খবর পৌঁছানো মাত্রই উদ্ধারকারী দল পৌঁছে যায় ঘটনাস্থলে। এবং আইফোন দ্বারা পাঠানো সুনির্দিষ্ট অবস্থান অনুসরণ করে সহজেই উদ্ধারকারী দল খাদে পড়া ব্যক্তিটিকে খুঁজে পায়। এই উদ্ধারকারী দলের এক সদস্য স্টিভ গোল্ডসওয়ার্দি এই প্রসঙ্গে বলেন, আইফোনের সাহায্য ছাড়া ওই গভীরতা থেকে ভিক্টিমকে খুঁজে পাওয়া অত্যন্ত কঠিন হতো। আর তিনি যে জায়গায় ফেঁসে গিয়েছিলেন, সময়মতো সেখান থেকে উদ্ধার না করা হলে হয়তো তিনি প্রাণ হারাতেন।

iphone sos sixteen nine

তিনি জানিয়েছেন, ঐ ব্যক্তি গুরুতর চোট পেয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, ঐ এলাকায় কোন মোবাইল নেটওয়ার্ক এবং ওয়াইফাই কভারেজ ছিল না। এমন পরিস্থিতিতে দুর্ঘটনার শিকার ব্যক্তিকে খুঁজে পাওয়া সহজ ছিল না। তবে আইফোনের কারণে এই কাজ অনেকটা সহজ হয়ে গেছে তাদের জন্য। একথা বলাই বাহুল্য যে, আইফোন আরও একটি বিস্ময়কর নজির সৃষ্টি করেছে।

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর