মালদ্বীপ বিতর্কে এবার আসরে ইজরায়েল, লাক্ষাদ্বীপের প্রচারে নামল নেতানিয়াহুর দেশ! শুরু বিশেষ প্রকল্পও

বাংলা হান্ট ডেস্ক: সম্প্রতি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর (Narendra Modi) প্রসঙ্গে কুরুচিকর মন্তব্য করেছিলেন মালদ্বীপের (Maldives) মন্ত্রী মালশা শরিফ, মারিয়াম শিউনা এবং আদুল্লা মাহজুম। যার পরিপ্রেক্ষিতে ইতিমধ্যেই ওই তিনজনকে খোয়াতে হয়েছে পদ। শুধু তাই নয়, এহেন পরিস্থিতিতে ভারতের বিদেশমন্ত্রকের তরফে মালদ্বীপের রাষ্ট্রদূত ইব্রাহিম সাহিবকে গত সোমবার তলব করা হয়েছিল।

   

তবে, এই ঘটনা প্রসঙ্গে মালদ্বীপের বিদেশমন্ত্রী মুসা জামির অবশ্য বলেছেন, অন্য দেশের নেতাদের অপমান করার মতো আচরণ কখনোই মেনে নেওয়া হবে না। এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি যে, বর্তমানে মালদ্বীপের শাসকদল চিনপন্থী হিসেবে পরিচিত। এমতাবস্থায়, বিগত কয়েক মাস যাবৎ ভারত-মালদ্বীপ সম্পর্কে কিছুটা চিড়ও ধরেছে। শুধু তাই নয়, এই বিতর্কের মাঝেই মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট চিন সফরেও গিয়েছেন। উল্লেখ্য যে, প্রধানমন্ত্রী মোদীর লাক্ষাদ্বীপ সফরকে নিয়ে মালদ্বীপের মন্ত্রীদের তরফে কুরুচিকর মন্তব্য করা হয়েছিল। আর তারপর থেকেই তৈরি হয় বিতর্কের আবহ। পাশাপাশি, আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে উঠে আসে লাক্ষাদ্বীপ। তবে, এবার একটি বড় তথ্য সামনে এসেছে।

এই প্রসঙ্গে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে, এবার লাক্ষাদ্বীপে জল পরিশুদ্ধ করার প্রকল্প তথা “ডিস্যালাইনেশন প্রোগ্রাম” চালুর ঘোষণা করল ইজরায়েল। এর পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়ায় লাক্ষাদ্বীপের সুন্দর সব ছবি এবং ভিডিও পোস্ট করা হয় ইজরায়েলের দূতাবাসের তরফে। ইতিমধ্যেই ভারতে অবস্থিত ইজরায়েলের দূতাবাসের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেল থেকে ঘোষণা করা হয় যে, মঙ্গলবার থেকেই লাক্ষাদ্বীপে “ডিস্যালাইনেশন প্রোগ্রাম” শুরু করবে তারা।

এর পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম “X”-এ ইজরায়েলি দূতাবাস জানিয়েছে, “গতবছর আমরা কেন্দ্রীয় সরকারের অনুরোধে লাক্ষাদ্বীপে গিয়েছিলাম। সেখানে আমরা ডিস্যালাইনেশন প্রকল্প চালু করব। আমরা এই প্রকল্পটি মঙ্গলবার থেকেই চালু করার ক্ষেত্রে প্রস্তুত রয়েছি।” জানা গিয়েছে যে, এই প্রকল্পের মাধ্যমে সমুদ্রের নোনতা জলকে পরিশুদ্ধ করে তা পানীয় জলে পরিণত করা হবে। যা সরাসরি লাক্ষাদ্বীপের পর্যটন শিল্পে ইতিবাচক প্রভাব প্রদান করবে।

আরও পড়ুন: ১০০% জমি অধিগ্রহণ সম্পন্ন, আর কিছু সময়ের অপেক্ষা! বুলেট ট্রেন নিয়ে বড় খবর দিল রেল

এছাড়াও, আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল মালদ্বীপের সঙ্গে চলমান বিতর্কের মাঝেই ইজরায়েলি দূতাবাসের তরফে ভারতের লাক্ষাদ্বীপের সৌন্দর্য তুলে ধরা হয়েছে। ওই পোস্টে লাক্ষাদ্বীপের বেশ কিছু ছবি এবং একটি ভিডিও পোস্ট করা হয়। পাশাপাশি, বলা হয় যে, “যাঁরা এখনও লাক্ষাদ্বীপের অসাধারণ সৌন্দর্য চাক্ষুস করেননি, তাঁদের জন্য ভারতের এই মায়াবী স্থানের কিছু ছবি এখানে দেওয়া হল।” এছাড়াও, “এক্সপ্লোর ইন্ডিয়ান আইল্যান্ডস”-এর হ্যাশট্যাগও দেওয়া হয়।

আরও পড়ুন: জমে যাবে এবারের IPL! এই একটি ঘোষণাতেই কপাল খুলল KKR-এর

ওই ছবিগুলির মধ্যে একটিতে দেখা গিয়েছে ইজরায়েলি আধিকারিকরা লাক্ষাদ্বীপে রয়েছেন। পাশাপাশি, আরেকটি ছবিতে সাদা বালি এবং স্বচ্ছ নীল জল পরিলক্ষিত হয়েছে। তৃতীয় ছবিতে স্বচ্ছ নীল জলে ডলফিনদের সাঁতার কাটতে দেখা গেছে। এছাড়াও, ভিডিওতে লাক্ষাদ্বীপের স্বচ্ছ নীল জলের ওপর দিয়ে একটি হেলিকপ্টারকে হেলিপ্যাডে অবতরণ করতে দেখা যায়।