টাইমলাইনভাইরালআন্তর্জাতিক

অধিবেশন চলাকালীন সংসদ ভবনের মধ্যেই মহিলা সাংসদকে কষিয়ে চড়! নেটমাধ্যমে ভাইরাল ভিডিও

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ কিছুদিন আগেই ন্যাশনাল টিভির এক বিতর্ক অনুষ্ঠানে পাকিস্তানি নেত্রী ফেরদৌস আশিক আওয়ান থাপ্পর মেরেছিলেন বিরোধী দলের নেতা কাদির খানকে।যা নিয়ে সময় যথেষ্ট বিতর্ক তৈরি হয়। রাজনৈতিক বাকবিতণ্ডা হাতাহাতিতে পরিণত হলে তা মোটেই মেনে নেওয়া যায় না। ফের একবার এমনই লজ্জাজনক ঘটনা ঘটলো তিউনিসিয়ায়। সম্প্রতি সোশ্যাল-মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ায় একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে বিতর্কের উত্তেজনায় তিউনিসিয়ার পুরুষ সাংসদ সংসদভবনের ভিতরেই থাপ্পর মারছেন এক মহিলা সাংসদকে। ঘটনা সামনে আসতেই তৈরি হয়েছে বিতর্ক, নিন্দার মুখেও পড়তে হয়েছে ওই সাংসদ সামরা সাহেবকে।

জানা গিয়েছে ঘটনাটি ঘটে ১ জুলাই। তিউনিসিয়ার সংসদ ভবনে তিউনিশিয়া এবং কাতারের মধ্যে স্বাক্ষরিত ফান্ড ফর ডেভেলপমেন্ট চুক্তি নিয়ে বিতর্ক চলছিল। বিতর্ক চলাকালীন চরম উত্তেজিত হয়ে পড়েন সামরা এবং ফ্রী ডিসট্রোস্টার পার্টির নেত্রী আবির মৌসি। সরগরম এই বিতর্ক সভাতেই মেজাজ হারান সামরা। উঠে এসে চড় মারতে থাকেন আবির মৌসিকে।

সামরার অভিযোগ, বিতর্ক চলাকালীন নিজের ফেসবুক লাইভে আমাদের দেশ বিক্রি করে দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলেছিলেন আবির মৌসি। এর পরেই মেজাজ ঠিক রাখতে পারেননি ওই পুরুষ সংসদ। আপাতত সামরা সাহেবকে নিয়ে নিন্দার ঝড় বইছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। এই ঘটনার পর সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিওটি পোস্ট করেন আবির মৌসিও। ক্যাপশনে তিনি লেখেন, “এটাই ওদের আসল চেহারা। হিংসা বিধি লঙ্ঘন এবং মহিলাদের অপমান করা।”

রাজনৈতিক বিতর্কের মান এই পর্যায়ে পৌঁছালে তা যে ভীষণ নিন্দনীয় তা বলাই বাহুল্য। এ ধরনের ঘটনায় বারবার সামনে আসে যারা দেশের সর্বময় কর্তা তাদেরই চূড়ান্ত ধৈর্যচ্যুতির দৃশ্য। যা মোটেই মেনে নেওয়া যায় না। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য ২০১৯ সালের নির্বাচনে ১৭ টি আসন লাভ করেছিলেন আবির মৌসি।

 

Back to top button