বড় ঘোষণা Maruti Suzuki-র! গাড়ির পরে এবার তৈরি করবে ইলেকট্রিক হেলিকপ্টার, সস্তায় হবে সফর

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক: যুগের সাথে তাল মিলিয়ে পরিবহণ ব্যবস্থাকে উন্নত করার পাশাপাশি উদ্ভব ঘটছে পরিবহণের নিত্যনতুন মাধ্যমেরও। এমনিতেই, বর্তমান সময়ে সমগ্র বিশ্বজুড়ে বৈদ্যুতিক যানবাহনের (Electric Vehicles) চাহিদা বৃদ্ধি পেয়েছে। ঠিক এই আবহেই, অটো কোম্পানি মারুতি সুজুকি (Maruti Suzuki) একটি বড় ঘোষণা করেছে। এই প্রসঙ্গে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে, এবার যানবাহনের পাশাপাশি আকাশপথে সফরের জন্য নয়া পরিকল্পনা সামনে এনেছে সংস্থা।

টাইমস অফ ইন্ডিয়ার একটি রিপোর্টে বলা হয়েছে যে, মারুতি তার জাপানি সহযোগী সংস্থা সুজুকির সাথে যৌথভাবে বৈদ্যুতিক হেলিকপ্টার তৈরি করবে। সংস্থার দেওয়া তথ্য অনুসারে, মারুতি দ্বারা তৈরি করা বৈদ্যুতিক এয়ার হেলিকপ্টারটি একটি ড্রোনের তুলনায় বড় হবে। তবে, প্রচলিত হেলিকপ্টারের চেয়ে ছোট হবে। যেটির পাইলট সহ কমপক্ষে তিনজন যাত্রী বহন করার ক্ষমতা থাকবে বলেও জানা গিয়েছে।

Maruti Suzuki to make electric helicopters

এই এয়ার ট্যাক্সি বিপ্লব আনবে পরিবহণে: এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি যে, মারুতির এই পদক্ষেপের লক্ষ্য হল ভারতে এটি বিস্তৃত করার আগে প্রাথমিকভাবে জাপান এবং আমেরিকার বাজারে প্রবেশ করা। অনুমান করা হচ্ছে যে আগামী সময়ে, এয়ার ট্যাক্সি পরিবহণের ক্ষেত্রে নতুন অধ্যায়ের সূচনা করবে। এদিকে আরও একটি উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, মারুতি শুধুমাত্র বিক্রয়ের জন্য ভারতীয় বাজার অন্বেষণের প্ৰতি মনোনিবেশ করছে না। বরং উৎপাদন খরচ কমাতে ভারতে উৎপাদনের কথাও বিবেচনা করছে।

আরও পড়ুন: “এটা ব্যবসা নয়”, প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করা স্টার্টআপকে বেমালুম “রিজেক্ট” করলেন আমন, অবাক করবে কারণ

নাম দেওয়া হবে স্কাইড্রাইভ: মারুতি সুজুকির ইলেকট্রিক এয়ার কপ্টারের নাম হবে স্কাইড্রাইভ। মোটর এবং রোটারের ১৩ ইউনিট দিয়ে সজ্জিত, এই এয়ার কপ্টার জাপানে ২০২৫ ওসাকা এক্সপোতে প্রদর্শিত হবে বলে অনুমান করা হচ্ছে। যেটির প্রাথমিক ক্ষেত্রে বিক্রয়ের ফোকাস হবে জাপান এবং আমেরিকা। তবে, মারুতি শেষ পর্যন্ত “মেক ইন ইন্ডিয়া” উদ্যোগের মাধ্যমে এই প্রযুক্তিটি ভারতে আনার পরিকল্পনা করেছে।

আরও পড়ুন: অবসরপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের জন্য বড় পদক্ষেপ! এবার চিকিৎসায় বাড়ল সুবিধা, হয়ে গেল ঘোষণা

এদিকে, রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে যে ১.৪ টনের টেক-অফের ওজনের সাথে এই এয়ার কপ্টারটি একটি প্রচলিত হেলিকপ্টারের ওজনের প্রায় অর্ধেক হবে। পাশাপাশি, কম ওজনের কারণে এটি টেক-অফ এবং অবতরণ করতে ভবনের ছাদ ব্যবহার করতে পারে। এদিকে, এর ফলে সাধারণ মানুষও খুব সহজেই স্কাইড্রাইভের অভিজ্ঞতা অর্জন করবেন। উল্লেখ্য যে, কম খরচের কারণে এটির ভাড়াও কম হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

Sayak Panda
Sayak Panda

সায়ক পন্ডা, মেদিনীপুর কলেজ (অটোনমাস) থেকে মাস কমিউনিকেশন এবং সাংবাদিকতার পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স করার পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর