রাতারাতি উধাও ৮০০ কোটি! RBI থেকে কীভাবে হল বেপাত্তা? কলকাতায় খানাতল্লাশি শুরু CBI’র

বাংলাহান্ট ডেস্ক : সাম্প্রতিক অতীতে একাধিক দুর্নীতির তদন্তে কলকাতায় তল্লাশি চালিয়েছে সিবিআই। এবার ব্যাংকে প্রতারণার তদন্তে আজ সকালে কলকাতায় তল্লাশি অভিযান শুরু করল কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআই। নিউটাউন, দত্তাবাদের একাধিক জায়গায় সোমবার সকালে হানা দেন সিবিআই অফিসারেরা।

   

বিভিন্ন ব্যাংক কর্মীর বাড়িতে চলছে তল্লাশি। রিজার্ভ ব্যাংক থেকে যে টাকা উধাও হয়ে গেছে সেই টাকা কোন কোন অ্যাকাউন্টে গেছে সেই বিষয়ে তদন্ত করতে সিবিআই এই তল্লাশি অভিযান চালাচ্ছে। RTI মারফত গত জুন মাসে জানা যায় ২০১৫ থেকে ২০১৬ সালের মধ্যে রিজার্ভ ব্যাংকের টাঁকশাল থেকে গায়েব হয়ে গেছে কয়েক হাজার কোটি টাকার ৫০০ টাকার নোট।

আরোও পড়ুন: ট্রাফিক রুল না মানলেই বাতিল লাইসেন্স, বাজেয়াপ্ত গাড়ি! বড় ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

এই বিপুল পরিমাণ টাকা কোথায় গেল তার সন্ধানে তদন্ত শুরু করে সিবিআই। তদন্তের অঙ্গ হিসেবে তল্লাশি অভিযান চালাতে আজ সকালেই কলকাতার একাধিক জায়গায় হানা দিয়েছে সিবিআই। সল্টলেকের (Salt Lake) সিজিও কমপ্লেক্স থেকে একাধিক সিবিআই দল সোমবার সকালে মোট ২০টি গাড়ি নিয়ে তল্লাশি অভিযানে বের হয়।

আরোও পড়ুন : অবিবাহিতদের এককালীন ২৫০০০ টাকা দিচ্ছে মমতা সরকার! এই ভাবে সহজেই করুন আবেদন

গোয়েন্দারা অভিযান চালান নিউটাউনের (New Town) দুটি আবাসন, দত্তাবাদের বাড়িতে। সূত্রের খবর, তল্লাশি চালানো হয়েছে দত্তাবাদের এক রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের কর্মী সুপ্রিয় মল্লিকের বাড়িতে। এই বিষয়ে সুপ্রিয় মল্লিকের বাবা জানিয়েছেন, “ওরা এসে খোঁজ করেছিলেন ছেলের। কথা বলেছেন ছেলের সাথে। ব্যাংকে চাকরি করে ছেলে। সেই সম্পর্কিত কাগজপত্র দেখেছেন। কিছু জানিনা আমি।”

img 20231204 151242

এছাড়াও আজ সকালে সিবিআই তল্লাশি চালায় নিউটাউনের ইউনি ওয়াল্ড সিটি আবাসনের ফেক্সকো ৩ বিল্ডিংয়ের ৬০৪ নম্বর রুম এবং নিউটনের মুক্তধারা আবাসন, বিএ ৭০-তে। এখানে তল্লাশিতে কী উদ্ধার হয়েছে সেই সম্পর্কে এখনো কিছু জানা যায়নি।