‘মায়ের গহনা বিক্রি করে কিনেছিলেন ক্রিকেট কিট’, ভারতীয় দলে ডাক পেয়ে কেঁদে ফেললেন ধ্রুব

বাংলা হান্ট ডেস্ক : গত শুক্রবারই ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (BCCI) ইংল্যান্ডের (England) বিরুদ্ধে প্রথম দুই টেস্টের ঘোষণা করেছে। সূত্রের খবর, চলতি মাসের শেষ দিকে পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ইংল্যান্ডের মুখোমুখি হবে ভারতীয় ক্রিকেট দল। ঘোষণার পরপরই চাপে পড়েছে ভারত। কারণ, ক্রিকেট দলের ফাস্ট বোলার মহম্মদ শামি ইতিমধ্যেই ইনজুরির কারণে বাদ পড়েছেন। বাদ গেছে ইশান কিশানের নামও।

   

তবে ভালো খবর, উত্তরপ্রদেশের ধ্রুব জুরেলের (Dhruv Jurel) জন্য। ২২ বছর বয়সি এই ক্রিকেটার গত বছর দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে মোট দুটি ম্যাচ খেলেছেন। ক্রিকেট কেরিয়ারের কথা বললে, তিনি বেনোনিতে দ্বিতীয় ম্যাচে ৬৯ রান করেছিলেন এবং সম্প্রতি রঞ্জি ট্রফির প্রথম রাউন্ডের গ্রুপ খেলায় কেরালার বিরুদ্ধে ইউপির হয়ে ৬৩ রান করেছিলেন।

আর এবার তিনি উঠে এলেন তৃতীয় উইকেটরক্ষক হিসেবে। তবে ব্যক্তিজীবনে ধ্রুব জুরেলের গল্পটা কেমন? নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের ধ্রুব জুরেল বেশ কষ্ট করেই এই জায়গায় পৌঁছেছেন। নিজের গল্প বলতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘আমি আর্মি স্কুলে পড়তাম। ছুটির দিনে যদিও আমি আগ্রার একলব্য স্টেডিয়ামে ক্রিকেট ক্যাম্পে যোগ দিতাম। ফর্ম ভরলেও বাবাকে বলিনি।’

আরও পড়ুন : এবার ‘বয়কট চীনা’ ট্রেন্ড গোটা বিশ্বে! বিগত ৭ বছরে এমন দুরাবস্থা প্রথম, ডুবছে ড্রাগন অর্থনীতি

আসলে ধ্রুবের ভয় ছিল, তার বাবা জানতে পারলে ক্রিকেট খেলা বন্ধ করে দেবেন। হয়েও ছিল তাই। যদিও সেই সময়কার মত ৮০০ টাকা ধার করে ক্রিকেট ব্যাটও কিনে দেন তিনি। তবে যখন ক্রিকেট কিটের কথা ওঠে তখন তিনি সাফ মানা করে দেন। আসলে তখন, ধ্রুবের বাবার কাছে এতটা টাকা ছিলনা যে তিনি একটা ছয় সাত হাজার টাকার কিট কিনে দেবেন।

আরও পড়ুন : এক নম্বরে হাওড়া! দেশের সবথেকে নোংরা ১০ শহরের তালিকায় রেকর্ড পশ্চিমবঙ্গের, সবকটিই বাংলায়

untitled design 5

ধ্রুব জুরেল বলেন, ‘তারপর আমার মা তার সোনার চেইন বিক্রি করে আমাকে ক্রিকেট কিট এনে দেন।’ সেই সাথে খেলোয়াড়ের সংযোজন, ‘ আমি যখন বন্ধুদের বললাম যে আমি নির্বাচিত হয়েছি, তারা আমাকে জিজ্ঞেস করেছিল ‘আমি কোন ভারতীয় দলে নির্বাচিত হয়েছি?’ আমি তাদের রোহিত ভাইয়া, বিরাট ভাইয়া ওয়ালা ইন্ডিয়ান টিমকে বলেছিলাম। এটা শুনে আমার পুরো পরিবার আবেগাপ্লুত হয়ে পড়ে।’