‘উনি আমাদের পাশে আছেন…’, মোদী সাক্ষাতের পর মুখ খুললেন সন্দেশখালির মহিলারা

বাংলা হান্ট ডেস্ক : বঙ্গ সফরে ব্যস্ত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর (Narendra Modi)। সদ্যই বারাসাতে (Barasat Meeting) সভা করেছেন তিনি। সেখানে তার বক্তৃতায় উঠে আসে সন্দেশখালির (Sandeshkhali) দুঃখ দুর্দশার কথা। তিনি বার্তা দেন ঝড় ওঠার, আর এই ঝড় নারীশক্তির। বাংলার বুকে নারীদের ওপর যে লাঞ্ছনা, অবমাননা এবং অত্যাচার হয়েছে তার যোগ্য জবাব ফেরত দেওয়ার কথা উঠে আসে তার মুখে। বুধবার সভার শেষে প্রধানমন্ত্রী দেখাও করেন পাঁচজন মহিলার সাথে।

   

এইদিন বারাসাতে বেশ বড়সড় সভা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সভার শেষে মঞ্চের পিছনে দেখা করেন সন্দেশখালির পাঁচজন মহিলার সাথে। সেখানে উপস্থিত ছিলেন সন্দেশখালির বিজেপি নেতা বিকাশ সিং। তারা একত্রে জানান কীভাবে শাসকদলের নেতা শাহজাহান এবং তার দলবল অত্যাচার চালায় পুরো এলাকায়। মহিলারা তাদের ওপর ঘটে চলা অত্যাচারের ঘটনা সবিস্তারে ব্যাখ্যা করেন।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের পর প্রতিনিধিদলের এক মহিলা সংবামাধ্যমের সামনে বলেন, “আমরা ৫ থেকে ৭ মিনিট কথা বলেছি। আমাদের উপর নির্যাতন, জমি লুঠের কথা সবই জানিয়েছি ওনাকে। শিবু হাজরা, উত্তম সর্দার, শাহজাহানের বাইক বাহিনীর কথা বলেছি। প্রধানমন্ত্রী বললেন উনি আমাদের পাশে আছেন, পাশে থাকবেন। কেন্দ্রীয় বাহিনীও দেবেন বলেছেন।”

আরও পড়ুন : ‘ও সুবিধাবাদী, ওর কথা ছাড়ুন’, অভিজিৎ গাঙ্গুলিকে বেনজির কটাক্ষ মমতার, আর যা বললেন…

narendra modi (4)

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এইদিন বারাসাতের সভা শেষে সন্দেশাখালির সাক্ষাৎকারীদের সাথে দেখা করেন প্রধানমন্ত্রী। মহিলাদের সাহসের ভূয়সী প্রশংসা করে তিনি জানিয়েছেন, এবার থেকে নাকি নিজেদের ভোট নিজেই দেওয়া সম্ভবপর হয়ে উঠবে। দ্রুত কেন্দ্রীয় বাহিনীকেও দেখা যাবে। তবে শুধু সন্দেশখালি নয়, তারা একইসাথে ঝুপখালি, বেড়মজুর, জেলিয়াখালির মহিলাদের কথাও বলেন প্রধানমন্ত্রীকে। এখন দেখার কত জলদি সেখানে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন হয়।

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর