টাইমলাইনবিনোদনভিডিও

গুড এর পর গুডার-গুডেস্ট! বাংলা সিরিয়ালের দৃশ‍্যে ভুলভাল ইংরেজি নিয়ে ট্রোল নেটপাড়ায়

বাংলাহান্ট ডেস্ক: বাংলা সিরিয়ালে (Bengali Serial) শুধু কূটকাচালি করা শেখানো হয়। নায়ক নায়িকার একাধিক বিয়ে, শাশুড়ি বৌমা নয়তো ননদ বৌদির রেষারেষি এসবই দেখানো হয়, এমন অভিযোগ বারে বারে তুলেছেন দর্শকরা। কিছু কিছু সিরিয়ালের দৃশ‍্য নিয়েও হয়েছে ট্রোল (Troll)। এখনো হচ্ছে। সম্প্রতি কালার্স বাংলার ‘তুমিই যে আমার মা’ সিরিয়ালের একটি দৃশ‍্য নিয়ে হাসাহাসি হচ্ছে নেটদুনিয়ায়।

ওই দৃশ‍্যে দেখা গিয়েছে, শিক্ষিকা ছাত্রীকে ভুল ইংরেজি শেখাচ্ছেন। গুড বেটার বেস্ট এর জায়গায় ওই শিক্ষিকা শেখাচ্ছেন গুড গুডার গুডেস্ট। দৃশ‍্যটির একটি ছোট্ট ভিডিও সোশ‍্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে। আর তারপর থেকেই শুরু হয়েছে ট্রোল। বাংলা সিরিয়ালের গল্পের যুক্তি নিয়ে তো প্রশ্ন উঠছেই, অনেকে মজা করে এও বলছেন, ‘আমরেলা’ দিদির শিক্ষিকা উনি।


উল্লেখ‍্য, কিছুদিন আগেও উচ্চমাধ‍্যমিকে অকৃতকার্য ছাত্রছাত্রীরা পাশের দাবিতে বিক্ষোভ করছিলেন। ইংরেজিতে পাশ না করানোর জন্য সোচ্চার হওয়া এমনি একজনকে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল ইংরেজিতে ‘আমব্রেলা’র বানান। একাধিক বার ভুল বানান বলেছেন সেই ছাত্রী। বিষয়টি নিয়ে ট্রোল শুরু করে নেটিজেনদের একাংশ। এখন মজা করে কয়েকজন কটাক্ষ করেছেন, সিরিয়ালের ওই শিক্ষিকা নাকি আমরেলা বলা ছাত্রীর শিক্ষিকা।

কিন্তু আদৌ কি বিষয়টা তাই? বিষয়টা নিয়ে সরব হয়েছেন অভিনেত্রী শ্রুতি দাস। ভিডিওটি শেয়ার করে তিনি লিখেছেন, ‘অনেকেই ট্রোল করছেন AMRELA বলা বোন টির গৃহশিক্ষিকা হিসেবে। কদিন আগে এক ধারাবাহিকে মোনালিসার ছবিতে মালা দিয়ে পূজো করা নিয়েও ট্রোল হয়েছিল। কিন্তু আমি তার নেপথ‍্য কাহিনি টা জানতাম তাই মাথা ঘামাই নি। কিন্তু এটা কি?’

তিনি আরো লিখেছেন, ‘বেটার হবে এমনকি বেস্ট হবে বিশ্বাস করুন আমরা এগিয়ে এলে
নয়ত “ধুর ওসব ঢপের বাংলা সিরিয়াল আমরা দেখিনা” চলতেই থাকবে ! এইমাত্র গোটা ক্লিপ টা দেখলাম। আপনারাও গোটা টা দেখে ট্রোল করুন প্লিজ। গোটা ভিডিও দেখলে বোঝা যাচ্ছে এটা সাজানো।’

আসলে অনেক সময়েই একটি দৃশ‍্যর নেপথ‍্যের বিষয়টা না জেনেই ট্রোল শুরু করে দেন অনেকে। এই সিরিয়ালের ক্ষেত্রেও ব‍্যাপারটা তেমনি। আসলে গৃহ শিক্ষিকার ভুল ইংরেজি শেখানো দেখে নায়িকা প্রিয়া মণ্ডল এগিয়ে এসে ভুলটা ধরিয়ে দেন। শ্রুতি নেটিজেনদের সঠিকটা ধরিয়ে দিয়েছেন।

Related Articles