আসতে চলেছে নয়া নিয়ম! পাসপোর্টের মতো ভেরিফিকেশন হবে আধার কার্ডের, সময় লাগবে ১৮০ দিন

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক: আমাদের দেশে (India) একটি গুরুত্বপূর্ণ নথি হিসেবে বিবেচিত হয় আধার কার্ড (Aadhaar Card)। এমতাবস্থায়, এই নথির প্রসঙ্গে প্রায়শই বিভিন্ন নিয়ম জারি করা হয় সরকারের তরফে। মূলত, সমগ্র বিষয়টিতে স্বচ্ছতা বজায় রাখার জন্যই এই পদক্ষেপগুলি গ্রহণ করা হয়। সেই রেশ বজায় রেখেই এবার একটি নতুন ব্যবস্থা চালু হতে চলেছে বলে জানা গিয়েছে। এর মাধ্যমে, পাসপোর্ট ভেরিফিকেশনের মত এবার আধার কার্ডেরও ভেরিফিকেশন সম্পন্ন হতে পারে। আর এটি করতে পারে রাজ্য সরকার।

জানা গিয়েছে যে, নতুন বছরের পর থেকে আধার কার্ডের জন্য যাচাই করার প্রক্রিয়াটি এসডিএম স্তরের আধিকারিকদের কাছ থেকে অনুমতি পেলেই বিবেচনা করা হবে এবং তারপরে আধার দেওয়া হবে। বর্তমানে, এটি Unique Identification Authority of India দ্বারা যাচাই করা হয়। এদিকে, এই নতুন প্রক্রিয়াটি ইতিমধ্যেই উত্তরপ্রদেশে কার্যকর করা হয়েছে বলেও খবর মিলেছে।

Now Aadhaar card will be verified like a passport

এছাড়াও, জানিয়ে রাখি যে, এই প্রক্রিয়াটি শুধুমাত্র ১৮ বছরের বেশি বয়সী ব্যক্তিদের জন্য লাগু হবে। এদিকে, আপনি যদি আধার কার্ডে কোনো আপডেট করতে চান সেক্ষেত্রে আপনাকে আগের পদ্ধতিই অনুসরণ করতে হবে। অর্থাৎ, সোজা কথায় আপনার একবার আধার কার্ড হয়ে গেলে আপনাকে আর এই প্রক্রিয়ার জন্য চিন্তিত হতে হবে না।

আরও পড়ুন: মোদীর মুকুটে নয়া পালক! নতুন বছরের আগেই বিশ্বের প্রথম নেতা হিসেবে গড়লেন এই বড় নজির

কত লাগবে সময়: তবে, আধার কার্ড তৈরির নতুন এই প্রক্রিয়া কার্যকর হওয়ার পরে, নতুন আধার ইস্যু করার ক্ষেত্রে প্রায় ৬ মাস অর্থাৎ প্রায় ১৮০ দিন সময় লাগতে পারে। যখন কেউ একজন আধার কার্ডের জন্য আবেদন করবেন তখন সেই তথ্য UIDAI দ্বারা যাচাই করা হবে এবং তারপরে আবেদনটি সার্ভিস প্লাস পোর্টালে পাঠানো হবে। সেই পোর্টালে প্রাপ্ত আবেদনগুলি এসডিএম দ্বারা ভেরিফিকেশন করা হবে। তবে, ওই ভেরিফিকেশনের সময়ে যদি কোনো নথি বা তথ্য ভুল বা সন্দেহজনক কিছু পাওয়া যায়, সেক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট আবেদনটি প্রত্যাখ্যান করা হবে।

আরও পড়ুন: নতুন বছরের শুরুতেই দুর্ভোগের আশঙ্কা গ্রাহকদের! জানুয়ারিতে ১৬ দিন বন্ধ থাকবে ব্যাঙ্ক, দেখে নিন তালিকা

এর পাশাপাশি ব্যক্তির শারীরিক যাচাইয়ের জন্য ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকাও বাধ্যতামূলক। এমতাবস্থায়, অনুমান করা হচ্ছে যে, এহেন প্রক্রিয়ার ফলে আধার কার্ড সংক্রান্ত জালিয়াতি বন্ধ করা যাবে। কারণ, অনেকেই জাল আধার কার্ড তৈরি করে বিভিন্ন সুবিধা গ্রহণ করে। এমনকি, প্রতারণার সাথেও যুক্ত থাকে। সেই কারণেই এহেন প্রবণতা কমাতে কড়া নিয়ম শুরু করার পথে হাঁটছে সরকার।

Sayak Panda
Sayak Panda

সায়ক পন্ডা, মেদিনীপুর কলেজ (অটোনমাস) থেকে মাস কমিউনিকেশন এবং সাংবাদিকতার পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স করার পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর