হাওড়া হোক কিংবা শিয়ালদহ, এবার আর লেট করবে না ট্রেন! রেল নিচ্ছে এই বড় পদক্ষেপ

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক: আমাদের দেশে (Indian) গণপরিবহণের ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম হল রেলপথ (Indian Railways)। প্রতিদিন লক্ষ লক্ষ মানুষ ট্রেনে চেপেই পৌঁছে যান নিজেদের গন্তব্যে। মফস্বল এলাকা থেকে শুরু করে বড় শহর প্রতিটি ক্ষেত্রেই এই চিত্র পরিলক্ষিত হয়। এদিকে, দৈনিক যাত্রীদের মধ্যে লোকাল ট্রেনের সফর করা যাত্রীদের সংখ্যাই সবথেকে বেশি থাকে। তবে, লোকাল ট্রেনে সফর করতে গিয়ে প্রায়শই যাত্রীরা বিভিন্ন অভিযোগও সামনে আনেন। তার মধ্যে অন্যতম হল নির্ধারিত সময় ট্রেন না পৌঁছানো অর্থাৎ ট্রেন লেট করা।

নিত্য যাত্রীদের সমস্যা

নিত্য যাত্রীদের কাছে এটি একটি প্রধান সমস্যার বিষয় হয়ে দাঁড়ায়। এমনকি কিছু কিছু ক্ষেত্রে অবস্থা এতটাই বেগতিক হয়ে যায় যে যাত্রীদের তুমুল অসন্তোষের মুখে পড়তে হয় রেল কর্তৃপক্ষকেও। তবে, এবার লোকাল ট্রেনকে সঠিক সময়ে চালানোর জন্য এবং সামগ্রিক বিষয়টি নজর রাখার লক্ষ্যে বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করছে রেল। এতদিন যাবৎ দূরপাল্লার ট্রেনগুলিতেই সময়ের দিকটিতে প্রাধান্য দেওয়া হলেও এবার যাত্রী পরিষেবার কথা মাথায় রেখে লোকাল ট্রেনের সময় দিকেও গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।

local train (1)

সবথেকে উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, লোকাল ট্রেন সময়ে চলছে কিনা, অথবা দেরি করে চললে কেন দেরি হচ্ছে এইসব বিষয়ে প্রতিদিন যাতে সঠিক রিপোর্ট পাওয়া যায় সেই কারণে এবার সাহায্য নেওয়া হচ্ছে প্রযুক্তির। পাশাপাশি, ট্রেনে বসছে রিয়েল টাইম ট্রেন ইনফর্মেশন সিস্টেম। ইতিমধ্যেই পূর্ব রেলের তরফে বিষয়টির পরিপ্রেক্ষিতে কাজ শুরু করা হয়েছে। জানা গিয়েছে যে, ৩৪৯ টি ইএমইউ লোকাল ট্রেনে এই স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থা চালু করে হয়েছে।

আরও পড়ুন: এবার গৌতম আদানির সাথে হাত মেলালেন অনিল আম্বানি! হয়ে গেল বড় ডিল, জানলে হবেন অবাক

জানিয়ে রাখি যে, রিয়েল টাইম ট্রেন ইনফর্মেশন সিস্টেমকে কাজে লাগিয়ে প্রতি মুহূর্তে ট্রেন কন্ট্রোলারকে রেল ট্র্যাকের অবস্থা সহ নির্দিষ্ট সময়ে নির্দিষ্ট জায়গার পরিপ্রেক্ষিতে ট্রেনের গতির মতো গুরুত্বপূর্ণ তথ্য প্রদান করা সম্ভব হবে। এছাড়াও, ওই মেশিনের মাধ্যমে পাঠানো তথ্যগুলি ট্রেন কন্ট্রোলার ছাড়াও চলে যাবে ন্যাশনাল ট্রেন এনকোয়ারি সিস্টেমের কাছেও। এখান থেকেই দেশের সমস্ত জোনের ট্রেন চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হয়।

আরও পড়ুন: এই অক্ষরগুলি দিয়ে নাম শুরু হলেই জীবনে মিলবে বড় সাফল্য! দু’হাতে আসবে টাকা, কি বলছে জ্যোতিষশাস্ত্র?

কি জানা গিয়েছে:

এদিকে, এই প্রসঙ্গে পূর্ব রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক কৌশিক মিত্র জানিয়েছেন, “এই জোনের ৪ টি ডিভিশন মিলিয়েই ইএমইউ লোকালগুলিতে শুরু হয়েছে এই সিস্টেম বসানোর কাজ। এদিকে, যে ৩৪৯টি লোকালে আরটিআইএস সিস্টেম বসেছে, সেগুলির মধ্যে ১৬৭ টি রেক হাওড়ার ইলেকট্রিক লোকো শেডের। এছাড়াও, ১১৫টি রয়েছে আসানসোল ইলেকট্রিক লোকো শেডের, ৩০ টি রয়েছে শিয়ালদহ লোকো শেডের। বাকি ২০ টি রয়েছে বর্ধমান ডিজেল শেডের এবং ৩ টে জামালপুর ডিজেল শেডের।”

Now the train will not be late

এছাড়াও, এই স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থা ধাপে ধাপে আরও কয়েকটি লাইনের ট্রেনে বসা হবে বলেও জানা গিয়েছে। পাশাপাশি, পূর্ব রেলের আধিকারিকরা অনুমান করছেন যে, এর ফলে লোকাল ট্রেনগুলির ক্ষেত্রে পরিচালন ক্ষমতা অনেকটাই বাড়বে এবং যাত্রীদেরও সুবিধা মিলবে।

Sayak Panda
Sayak Panda

সায়ক পন্ডা, মেদিনীপুর কলেজ (অটোনমাস) থেকে মাস কমিউনিকেশন এবং সাংবাদিকতার পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স করার পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর