আট হাজারি শৃঙ্গ ছুঁয়ে ৮০ লক্ষের ঋণ! দেনা মেটাতে মেলায় জুতো-জ্যাকেট বিক্রি এভারেস্ট জয়ী পিয়ালির

বাংলা হান্ট ডেস্ক : একের পর এক শৃঙ্গ জয়লাভ করেছেন পর্বতারোহী পিয়ালি বসাক (Piyali Basak)। এই বঙ্গ-কন্যা পিয়ালি ২০২৩ সালে ১৭ই মে বুধবার সকাল সাতটা থেকে আটটার মধ্যে বিশ্বের পঞ্চম উচ্চতম শৃঙ্গ মাউন্ট মাকালু (Mount Makalu) জয় করেন। তিনি পর পর ছয়টি আট হাজারি শৃঙ্গ জয়ের শিরোপা পেয়েছেন।

   

তিনি চন্দননগরের (Chandannagar) পাহাড়ি কন্যা পিয়ালি বসাক। তাঁর এই পাহাড়প্রেমের কারণেই ৮০ লক্ষ টাকার ঋণের বোঝা চেপেছে। তবে তিনি রাজ্য সরকার (Goverment Of West Bengal) বা কেন্দ্র সরকারের (Central Goverment) পক্ষ থেকে কোনও রকম আর্থিক সাহায্য পাননি। তাই তাঁকে টাকা আয়ের (Income) জন্য দোকান খুলে বসতে হল মেলায়। তিনি হাল ছেড়ে দেননি। এত টাকার ঋণের বোঝা মাথায় থাকার পরও পাহাড়ের শৃঙ্গ ছোঁয়ার ইচ্ছে রাখেন।  

তিনি মেলায় একটি ছোট্ট স্টল খুলেছেন তাঁর। সেই স্টলে পাওয়া যায়, পাহাড়ি জ্যাকেট, জুতো ইত্যাদি। এগুলি বিক্রি করলে কিছু তো লাভ হবে এই আসায় তিনি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। চন্দননগরে ইস্পাত সংঘের আয়োজনে এই মেলা চালু করা হয়েছে। মেলাটি শুরু হয়েছে ২৩শে ডিসেম্বর থেকে এবং এটি চলবে ১ জানুয়ারি পর্যন্ত।

আরও পড়ুন : প্রতি মাসে ১০০ জনের রাম মন্দির দর্শনের ব্যবস্থা করবেন শুভেন্দু, এইভাবে মিলবে বিশেষ সুবিধা

এই মেলা শুরু হয় দুপুর ২টো থেকে। কিন্তু পিয়ালি দি-র দেখা পাওয়া যায় বিকেল ৪টের সময়। কারণ বাড়িতে তাঁর অসুস্থ বাবা। পিয়ালি জানিয়েছেন, ‘আমার দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞতা, কোথায় কম দামে জিনিস পাওয়া যায় তা আমি ভালোই জানি। সেগুলিকেই নিয়ে এসেছি, বিক্রি হলে কিছুতো পয়সা পাবো’।

আরও পড়ুন : কলকাতায় ঘর সাজাচ্ছে RSS? উপেন-কল্যাণের পরে বিক্রম, ভিক্টরের বাড়িতে ভাগবত, জল্পনা তুঙ্গে

piyali bookfair stall

গত নভেম্বর মাসেই রাজ্যপালের হাতে পুরস্কৃত হয়েছেন। সেখান থেকে তাঁর ৫০ হাজার টাকা পাওয়ার কথা। কিন্তু সে টাকা এখনও তিনি পান নি। তাঁর সরকারি-বেসরকারি ব্যাঙ্ক মিলিয়ে তাঁর ধার হয়েছে প্রায় ৫০ লক্ষ টাকার মতো। আর তারমধ্যেই মাকালু জয়লাভ করেছেন তিনি। আর সে মাকালু সংস্থা তাঁর কাছ থেকে পাবে প্রায় ৩০লক্ষ টাকা। এই ৮০ লক্ষের ধার মেটাতে তিনি মেলায় একটি ছোট্ট স্টল খুলে বসেছেন। তবে স্টল খুললেও সেখানে বিক্রির চাইতে বেশি মানুষ ভিড় করছেন তাঁর সাথে সেলফি তোলার জন্য।