ঋণগ্রহীতাদের জন্য বড় খবর! রেপো রেট নিয়ে বিরাট সিদ্ধান্ত নিল RBI, কতটা পড়বে প্রভাব?

বাংলা হান্ট ডেস্ক : গত ৬ ডিসেম্বর থেকে শুরু হওয়া মুদ্রানীতির বৈঠক শেষে বড় ঘোষণা করল রিজার্ভ ব্যাঙ্ক (Reserve Bank of India)। শুক্রবার বৈঠক শেষে গভর্নর শক্তিকান্ত দাস জানান, মনেটরি পলিসি কমিটির বৈঠকে রেপো রেট (Repo Rate) অপরিবর্তিত রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এই নিয়ে পঞ্চমবার অপরিবর্তিত রইল রেপো রেট। সেই সাথে অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে রিভার্স রেপো রেটও (Reverse Repo Rate)।

   

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ৬ সদস্যের মুদ্রানীতি কমিটিতে ৫ সদস্যের সহমতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে খবর। যার জেরে এই ত্রৈমাসিকে রেপো রেট থাকবে ৬.৫ শতাংশ। জানিয়ে রাখি, গত বছর মে মাস থেকেই ধাপে ধাপে বাড়ানো হয়েছিল রেপো রেট। মূল্যবৃদ্ধিকে নিয়ন্ত্রণে রাখতেই ২০২২ সালের মে মাসে ২৫০ বেসিস পয়েন্ট রেপো রেট বাড়িয়েছিল রিজার্ভ ব্যাঙ্ক।

এইদিন কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কের গভর্নর শক্তিকান্ত দাস জানান, স্ট্যান্ডিং ডিপোজিট ফেসিলিটি রেট থাকবে ৬.২৫ শতাংশ এবং মার্জিনাল স্ট্যান্ডিং ফেসিলিটি রেট ও ব্যাঙ্ক রেট ৬.৭৫ শতাংশ হারে অপরিবর্তিত থাকছে। সেই সাথে ব্যআঙ্ক রেট থাকবে ৬.৭৫ শতাংশ। সেই সাথে ফিক্সড রিভার্স রেপো রেট ধার্য করা হয়েছে ৩.৩৫ শতাংশ। আর এই খবরের পর অনেকটাই স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছে সাধারণ মানুষ।

আরও পড়ুন : রাত পোহালেই পেশ হবে রিপোর্ট, খারিজ হতে চলেছে মহুয়ার সাংসদ পদ? জল্পনা তুঙ্গে

উল্লেখ্য, এর আগে এপ্রিল মাসেও রেপো রেটে কোনও পরিবর্তন করা হয়নি। তারপর জুন ও অগাস্ট মাসেও রেপো রেটে কোনও পরিবর্তন করা হয়নি। এছাড়া উৎসবের মরশুমেও একই রাখা হয়েছিল রেপো রেট। যার জেরে হোম লোন থেকে শুরু করে ইএমাই সবক্ষেত্রেই গ্রাহকদের পকেটে নতুন করে কোনও চাপ পড়বেনা বলেই আশা। সেই সাথে বিভিন্ন ব্যাঙ্কের আমানতকারীদের আমানতের সুদের হারও অপরিবর্তিত থাকবে।

আরও পড়ুন : প্রধানের প্যাড, সিল জাল! ভুয়ো সই করে বিপাকে সিভিক ভলান্টিয়ার! যেতে হল শ্রীঘরে

10 what is the current repo rate 2021

জানিয়ে রাখি, রেপো রেট হল, রিজার্ভ ব্যাঙ্ক যে হারে অন্যান্য ব্যাঙ্ককে ঋণ দেয়। এবং রিভার্স রেপো রেট হল, যে সুদের বিনিময়ে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অন্যান্য ব্যাঙ্ক থেকে ঋণ নেয়। এবং এই দুই রেট অপরিবর্তিত থাকায় গ্রাহকদের উপর বাড়বেনা ঋণের বোঝা। শুক্রবার শক্তিকান্ত দাস বলেন, “মূল্যবৃদ্ধিকে নিয়ন্ত্রণে রাখতেই মনিটারি পলিসি কমিটি রেপো রেট অপরিবর্তিত রেখেছে। আগামী কয়েক মাসে সম্ভাব্য মূল্যবৃদ্ধি ও আর্থিক বৃদ্ধিকে নজরে রেখেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।”