হঠাৎ শুভেন্দুর বাড়িতে হানা পুলিশের! তারপর যা করলেন বিরোধী দলনেতা, তোলপাড় রাজ্য

   

বাংলাহান্ট ডেস্ক : কোলাঘাটের বাড়িতে হঠাৎ করে পুলিশি অভিযানের অভিযোগ তুলে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)। এদিন সোজা কোলাঘাট (Kolaghat) থানায় উপস্থিত শুভেন্দু। তিনি জানান, বহু মানুষ তার সঙ্গে দেখা করতে চান। কাঁথি এবং কলকাতার মধ্যে অনেকটাই দূরত্ব। সেই কারণেই সাধারণ মানুষের সঙ্গে দেখা করতে যাতে কোনরকম সমস্যায় পড়তে না হয় তাই ওই বাড়িটি ভাড়া নিয়েছেন তিনি।

আজ কেশপুরে বিজেপির (Bharatiya Janata Party) কর্মসূচিতে ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। বাড়ির কেয়ারটেকার ফোন করে শুভেন্দুকে জানান, সিভিল ড্রেসে আইপ্যাকের ছেলে ও কোলাঘাটের সিআই সহ ওসি কাউকে কিছু না জানিয়েই ঢুকে পড়েছে তার বাড়িতে। অভিযোগ শুভেন্দু অধিকারীর। শুভেন্দু অধিকারীর অনুপস্থিতিতে পুলিশের এমন সক্রিয়তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

আরোও পড়ুন : সাবধান! ধেয়ে আসছে রিমল! প্রবল ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা রাজ্যে, দেখুন ঘূর্ণিঝড় কোথায় আছড়ে পড়বে

সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন বিরোধী দলনেতা। তিনি বলেন, “সার্চ ওয়ারেন্ট, ভিডিয়োগ্রাফি ছাড়া… আমার বা আমার অনুমোদিত লোকের উপস্থিতি ছাড়া কীভাবে অভিযান হতে পারে? যদি দুটো ভাঙা বন্দুক বা জাল নোট বা মাদক রেখে দেওয়া হয়, তার দায়িত্ব কে নেবে?” বিরোধী দলনেতা স্পষ্ট জানান, “আমার উপস্থিতিতে যদি সার্চ ওয়ারেন্ট থাকে, হাইকোর্টের অনুমোদন যদি থাকে, আমি অনুমতি দেব। আমি আইন মেনে চলি।”

আরোও পড়ুন : হয়ে যান সতর্ক! SBI, ICICI Bank, Axis Bank এবং PNB সাবধান করল গ্রাহকদের, নাহলেই হবে…..

কেয়ারটেকারের থেকে ওই খবর পাওয়ার পর দলে নেতাকর্মীদের বিষয়টি জানান শুভেন্দু। তাই শুভেন্দু সেখানে না পৌঁছানো পর্যন্ত কোলাঘাটের ওই বাড়িতে নেতাকর্মীদের উপস্থিত থাকার কথাও বলেন। শুভেন্দুর ভাড়াবাড়িতে যেতেই পুলিশের সঙ্গে বিজেপি কর্মীদের হাতাহাতিও হয়। কোলাঘাট থানায় গিয়ে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী প্রশ্ন তোলেন, কেন এই পুলিশের অভিযান। এই নিয়ে থানার সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন বিজেপি নেতাকর্মীরা, চলে স্লোগান।

Suvendu Adhikari on SSC recruitment scam

যদিও এদিন থানায় ওসি না থাকার কারণে ক্ষোভ প্রকাশ করেন শুভেন্দু। এমনকি তাকে যাতে সাসপেন্ড করা হয় তার দাবিও জানান। থানা থেকে বেরোনোর পর সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে শুভেন্দু অধিকারী হুঁশিয়ারির সুরে বলেন, “আমি আইনি পথে মোকাবিলা করে নেব। রাতের মধ্যেই আমি সিসিটিভি ফুটেজ পাঠাচ্ছি কমিশনকে। যে পুলিশকর্মীরা গিয়েছিল, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। এর শেষ আমি দেখে ছাড়ব।”

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর