১০ দিন পর অবশেষে মিলল খোঁজ! কোথায় রয়েছে সন্দেশখালির শাহজাহান? জানলে ‘থ’ হয়ে যাবেন

   

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ রেশন দুর্নীতি (Ration Scam) মামলায় সন্দেশখালির ঘটনার পর কেটে গিয়েছে প্রায় ১০ দিন। ইডি (ED) অফিসারদের ওপর হামলার ঘটনায় এখনও পর্যন্ত চার জনতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আর এবার অবশেষে সন্দেশখালির ঘটনার প্রায় ১০ দিন পর ‘খোঁজ মিলল’ তৃণমূল নেতা, ঘটনায় মূল ‘অভিযুক্ত’ শেখ শাহজাহানের (Sheikh Shahjahan)। সোমবার নিজেই কলকাতা হাই কোর্টের (Calcutta high Court) দ্বারস্থ হন তিনি।

সূত্রের খবর, এদিন আইনজীবী মারফত সন্দেশখালির ‘বাদশা’ শাহজাহান হাই কোর্টে জানিয়েছেন, তিনি সন্দেশখালির মামলায় যুক্ত হতে চান। এই ঘটনায় তার বক্তব্যও শোনা হোক বলে আবেদন করেছেন তিনি। প্রসঙ্গত, গত ৫ জানুয়ারি শুক্রবার সাতসকালে রেশন দুর্নীতি মামলায় উত্তর ২৪ পরগনার সন্দেশখালিতে পৌঁছে যায় ইডি। সেখানে তৃণমূল নেতা (TMC Leader) শেখ শাহজাহানের বাড়িতে হানা দেন আধিকারিকরা। আর সেই খবর ছড়িয়ে পড়তেই ইডি আধিকারিকদের ওপর হঠাৎ চড়াও তৃণমূল নেতার অনুগামীরা। কেন না জানিয়ে হানা দিয়েছে ইডি? এই প্রশ্ন তুলেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন বিক্ষোভকারীরা।

হাজার হাজার তৃণমূল কর্মী-সমর্থক শাহজাহানের বাড়ির সামনে জড়ো হন। ইডি হানার বিরুদ্ধে শুরু হয় বিক্ষোভ। এখানেই শেষ নয়, ইডির আধিকারিকদের মারধরও করেন তৃণমূল নেতার অনুগামীরা। মেরে মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয় ইডি আধিকারিকদের। ভাঙচুর চলে ইডির গাড়ি। এরপর একদম ধাওয়া করে ইডি আধিকারিকদের এলাকা ছাড়া করেন কয়েক হাজার বিক্ষোভকারী। সাথে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের ওপরও হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ। তৃণমূলের কর্মীদের হাতে আক্রান্ত হন সাংবাদিকরাও। ঘটনার পরই রক্তাক্ত অবস্থায় ৩ ইডি আধিকারিককে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপরই এই ঘটনা নিয়ে হাই কোর্টে মামলা করে ইডি।

calcutta hc

আরও পড়ুন: রেশন দুর্নীতিতে জ্যোতিপ্ৰিয়র ‘খেলা’ উল্টে দিল ‘মেরুন ডায়েরি’! কার কাছে কত টাকা? ফাঁস করল ED

শাহজাহানের আইনজীবীর আর্জি শুনে ভর্ৎসনার সুরে বিচারপতি বলেন, ‘আপনার মক্কেল এখনও আত্মসমর্পণ করেননি কেন?’ জবাবে অভিযুক্ত পক্ষের আইনজীবী বলেন, ‘ইডির অভিযান সঠিক ছিল না।’ একথা শুনে বিচারপতি বলেন, ‘তবুও আপনার ইডির সঙ্গে সহযোগিতা করা উচিত।’ এরপর সিবিআই এর আইনজীবী জানান শাহজাহান মামলায় যুক্ত হতে চাইলে ওকালতনামা জমা দিতে হবে। মামলার পরবর্তী শুনানিতে রাজ্যকে এই মামলার কেস ডায়েরি নিয়ে আসার নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি। ১৬ই জানুয়ারি মামলার পরবর্তী শুনানি।

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর