টাইমলাইনখেলাআন্তর্জাতিকক্রিকেট

মারকুটে ব্যাটিং, বিধ্বংসী বোলিংয়ে বিশ্ব কাঁপানো ন্যাথান অ্যাস্টেল এখন রাখছেন প্রাণ বাজি

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ ন্যাথান অ্যাস্টেল নিউজিল্যান্ডের এমন একজন ক্রিকেটার, নব্বইয়ের দশকে যার মারমুখী ব্যাটিং রীতিমতো ভয়ের কারণ হয়ে উঠেছিল বিশ্বব্যাপী বোলারদের কাছে। ১৯৭১ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর জন্মগ্রহণ করা অ্যাস্টেল আজ পা দিলেন ৫০ বছরে। এই মারমুখী ক্রিকেটার নিউজিল্যান্ডের জার্সি পড়ে প্রথমবার মাঠে নেমেছিলেন ১৯৯৫ সালে। ২০০৭ সালে অবসর গ্রহণের আগে অবধি দেশের হয়ে মোট ১১ হাজারেরও বেশি রান সংগ্রহ করেছিলেন তিনি। সাথে সাথেই রয়েছে ১৫৪ টি উইকেট।

তার ১২ বছরের দীর্ঘ ক্রিকেটজীবনে দেশের হয়ে ৮১ টি টেস্ট খেলেছেন অ্যাস্টেল। ১১ টি শতরান ও ২৪ টি অর্ধশতরান সহ মোট সংগ্রহ করেছেন ৪৭০২ রান। এছাড়া একদিনের ক্রিকেটে ২২৩ টি ম্যাচে মোট ৭০৯০ রান সংগ্রহ করেছিলেন তিনি। তবে অ্যাস্টেল বিখ্যাত তার একটি অনবদ্য রেকর্ডের জন্য যা এখনও পর্যন্ত কেউ ভাঙতে পারেনি। অ্যাস্টেল হলেন সেই ব্যাটসম্যান যিনি টেস্ট ক্রিকেটে সবথেকে দ্রুত দ্বিশত রান পূর্ন করেছিলেন।

২০০২ সালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে মাত্র ১৬৮ বলে ২২২ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলে এই রেকর্ড গড়েন তিনি। ২০০৭ সালে হঠাৎই সকলকে অবাক করে ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছিলেন অ্যাস্টেল। বিশ্বকাপের ঠিক আগে ক্রিকেট থেকে সন্ন্যাস গ্রহণ করে এই বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান জানিয়েছিলেন, ক্রিকেট খেলতে আর ভাল লাগছে না তার। অবশ্য এখনও খেলার সঙ্গেই যুক্ত রয়েছেন তিনি। তবে এবার যে খেলাকে বেছে নিয়েছেন এই বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান তাতে পদে পদে রয়েছে প্রাণের ঝুঁকি।

এই মুহূর্তে মডিফায়েড কার রেসিংয়ের সঙ্গে যুক্ত তিনি। কার্যত এই খেলা থেকে উপার্জন করেই সংসার চলে তার। তবে অ্যাস্টেল এই খেলায় আনন্দ পেলেও খেলাটি যে ভীষণ ঝুঁকিপূর্ণ তা বলাই বাহুল্য। কারণ প্রায়শই এক্ষেত্রে কোনও না কোনও দুর্ঘটনার মুখোমুখি হয় গাড়ি গুলি। যার জেরে একাধিকবার প্রাণ সংশয় হয়েছে ড্রাইভারদের।

Related Articles

Back to top button