নিষিদ্ধ বিদেশে! তবুও ভারতে রমরমিয়ে ব্যবসা চলছে এই ৫টি জিনিসের, তালিকা দেখে চোখ কপালে উঠবে

বাংলাহান্ট ডেস্ক : আচ্ছা আপনারা জানেন কি এমন বহু পণ্য রয়েছে যেগুলি বিদেশের বাজারে নিষিদ্ধ হলেও ভারতে রমরমিয়ে নিয়ে চলছে? নিশ্চই আপনাদের মনে কৌতূহল জাগছে জানতে যে বিদেশের বাজারে কোন নিষিদ্ধ পণ্যগুলি আমাদের দেশে ব্যবহার করা হচ্ছে? আজ আমরা এই দ্রব্যগুলি সম্পর্কেই আলোচনা করব।

   

লাইফবয় সাবান: ভারতে প্রতিটি বাড়িতেই লাইফবয় সাবান অত্যন্ত পরিচিত একটি নাম। ছোটবেলা থেকেই আমরা এই সাবানের ব্যবহার করে আসছি। ট্রাইক্লোস্যান নামক একটি যৌগ থাকে এই সাবানে। পৃথিবীর বহু দেশে এই যৌগ ব্যবহার নিষিদ্ধ। বলা হয়ে থাকে এই যৌগের ফলে শরীরে বিভিন্ন হরমোনের কার্যকারিতা ও অ্যান্টিবায়োটিকের কার্যক্ষমতা কমে যায়।

রেড বুল: ভারতের বাজারে এনার্জি ড্রিংক হিসাবে রেড বুল বেশ পরিচিত। তবে এই নরম পানীয়ের উপর ফ্রান্স ও ডেনমার্কে রয়েছে বিশেষ নিষেধাজ্ঞা। মনে করা হয় দীর্ঘদিন এই পানীয় সেবন করলে হৃদ্‌যন্ত্রের সমস্যা, অবসাদ, উচ্চ রক্তচাপের মতো সমস্যা দেখা দেয়। এই কারণে ফ্রান্স ও ডেনমার্কের ১৮ বছরের কম বয়সীদের এই পণ্য বিক্রি করা হয় না।

আরোও পড়ুন : পিছিয়ে আদানি, শীর্ষে এবার আম্বানি! কলকাতায় কোটিপতিদের সংখ্যা দেখলে চমকে যাবেন

ডিসপ্রিন: এই ওষুধের ব্যবহার ইউরোপের একাধিক দেশে নিষিদ্ধ। এই বেদনানাশক ওষুধের ফলে বৃদ্ধি পেতে পারে রক্তক্ষরণের সমস্যা। এছাড়াও একাধিক গবেষণায় এই ওষুধের একাধিক পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া সামনে এসেছে। ভারতীয় চিকিৎসকেরাও মাথাব্যথা হলে ডিসপ্রিন বেশি ব্যবহার করতে বারণ করে থাকেন।

আরোও পড়ুন : শিয়ালদহ লাইনে AC লোকাল নিয়ে এবার বড়সড় আপডেট! রেলের পক্ষ থেকে যা বলা হল…

কাঁচা দুধ: ব্যাক্টেরিয়াঘটিত সংক্রমণের ঝুঁকি থেকে যায় কাঁচ দুধে। এছাড়াও কাঁচা দুধে থাকে বিষক্রিয়ার সম্ভাবনা। তাই বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কাঁচা দুধ বিক্রি নিষিদ্ধ। পাস্তুরাইজ়েশন পদ্ধতিতে ব্যাক্টেরিয়ামুক্ত করে প্যাকেটজাত দুধ বিক্রি হয় বিশ্বের এই দেশগুলিতে। তবে ভারতে কাঁচা দুধ বিক্রি খুবই স্বাভাবিক একটি ঘটনা।

1697029345 whatsapp image 2023 10 11 at 6 31 52 pm

কিনডার জয়: এই চকোলেটটি বাচ্চাদের কাছে খুবই জনপ্রিয়। তবে এই চকলেটের মধ্যে যে ছোট্ট খেলনা থাকে সেটি আটকে যেতে পারে শিশুদের গলায়। এই আশঙ্কা থেকে আমেরিকায় কিনডার জয় বিক্রি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর