অবস্থা শোচনীয়! চিনের ইতিহাসে সবথেকে বড় কেলেঙ্কারি, দেউলিয়া হয়ে যাওয়া কোম্পানি দিল ধাক্কা

বাংলা হান্ট ডেস্ক: ফের কেলেঙ্কারি চিনে (China)! ভারতের (India) এই পড়শি দেশে এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে বড় আর্থিক জালিয়াতির ঘটনা সামনে এসেছে। দেশটির রেগুলেটর্স দেউলিয়া হয়ে যাওয়া রিয়েল এস্টেট কোম্পানি Evergrande এবং তার প্রতিষ্ঠাতার বিরুদ্ধে রেভিনিউ ৭৮ বিলিয়ন ডলার বাড়িয়ে দেখানোর অভিযোগ সামনে এনেছে। এটিকে এখনও পর্যন্ত ওই দেশের সবচেয়ে বড় কেলেঙ্কারি বলে মনে করা হচ্ছে।

   

উল্লেখ্য যে, Evergrande হল বিশ্বের সবচেয়ে ঋণগ্রস্ত কোম্পানি। এটির ৩০০ বিলিয়ন ডলারের বেশি ঋণ রয়েছে। ২০২১ সালে, কোম্পানিটি ঋণ পরিশোধে ডিফল্ট হয়েছিল। যার পরে চিনে একটি রিয়েল এস্টেট সঙ্কট দেখা দেয়। জানিয়ে রাখি যে, চিনের অর্থনীতিতে রিয়েল এস্টেটের অংশীদারিত্ব প্রায় ৩০ শতাংশ। এই কারণে দেশের পুরো অর্থনীতিই ডুবে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

This is the biggest scam in the history of China.

চিনের সিকিউরিটিজ রেগুলেটরি কমিশন Evergrande গ্রুপের ফ্ল্যাগশিপ কোম্পানি হেংদা রিয়েল এস্টেটকে ৫৮০ মিলিয়ন ডলারের জরিমানা আরোপ করেছে। পাশাপাশি, Evergrande গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান জু জিয়াইনকে ৬.৫ মিলিয়ন ডলার জরিমানা করা হয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে কোম্পানির আর্থিক অবস্থা বাড়িয়ে প্রদর্শন করার পাশাপাশি নিয়ম লঙ্ঘনের অভিযোগ রয়েছে।

আরও পড়ুন: দুই ভাগে বিভক্ত হবে এই মহাদেশ! বিশ্বে তৈরি হবে ষষ্ঠ মহাসাগর, বিজ্ঞানীরা খুঁজে পেলেন স্থান

শুধু তাই নয়, একসময়ে চিনের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি জু জিয়াইনকে সিকিউরিটিজ মার্কেট থেকে চিরতরে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। প্রায় আট মাস ধরে চলা তদন্তের পর কমিশন Evergrande-এর অপকর্ম ফাঁস করেছে। উল্লেখ্য যে, জানুয়ারিতে হংকংয়ের একটি আদালত Evergrande বিক্রির নির্দেশ দেয়।

আরও পড়ুন: “আমি লজ্জিত, দয়া করে এটা বলবেন না”, ভক্তদের উদ্দেশ্যে “বিব্রত” বিরাট, দিলেন বড় প্রতিক্রিয়া

৭৮ বিলিয়ন ডলারের কেলেঙ্কারি: কোম্পানিটির ফাইন্যান্সিয়াল রিপোর্টে বিক্রি বাড়িয়ে দেখানোর অভিযোগ রয়েছে। এর ভিত্তিতে কোম্পানিটি তার বন্ড বিক্রি করেছে। রেগুলেটর্সদের মতে, হেংদা ২০১৯ সালে ৩০ বিলিয়ন ডলারের বিক্রি দেখিয়েছিল। যা তার আয়ের প্রায় অর্ধেক ছিল। একইভাবে, কোম্পানিটি ২০২০ সালে ৪৮.৬ বিলিয়ন ডলারের বিক্রি দেখিয়েছিল। যা ছিল তার রেভিনিউয়ের ৭৮ শতাংশ। তদন্তে জানা গেছে, কোম্পানিটি পরিসংখ্যানকে অতিরঞ্জিত করেছে। এইভাবে, কোম্পানির মুনাফা ২০১৯ সালে ৬৩ শতাংশ এবং ২০২০ সালে ৮৭ শতাংশ বৃদ্ধির সাথে দেখানো হয়েছে। এমতাবস্থায়, কোম্পানিটি ২ বছরে ৭৮ বিলিয়ন ডলারের জালিয়াতি করেছে। যা চিনের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় কেলেঙ্কারি হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে।

Sayak Panda
Sayak Panda

সায়ক পন্ডা, মেদিনীপুর কলেজ (অটোনমাস) থেকে মাস কমিউনিকেশন এবং সাংবাদিকতার পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স করার পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর