এই বছর আর নয় শীতের কাঁপুনি! বড় তথ্য IMD-র, সামনে এল ভয়ঙ্কর আবহাওয়া বার্তা

বাংলা হান্ট ডেস্ক: এবার একটি বড় খবর সামনে এসেছে। প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে, IMD (India Meteorological Department) এবার সমগ্র দেশে উষ্ণ শীতের (Warm Winter) পূর্বাভাস দিয়েছে। পাশাপাশি, এটাও জানিয়েছে যে, সর্বনিম্ন তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি হতে পারে। মূলত, এটি ভারত সহ সারা বিশ্বে বিগত মাসগুলিতে অনুভূত তাপের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। উল্লেখ্য যে, ১৯০১ সালের পর থেকে চলতি বছরে তৃতীয় উষ্ণতম নভেম্বর ছিল। শুধু তাই নয়, এই বছর, ফেব্রুয়ারি, অগাস্ট এবং নভেম্বর মাস ১৯০১ সালের পর ভারতে সবচেয়ে উষ্ণ মাস হিসেবে বিবেচিত হয়েছে। এর পাশাপাশি, ২০২৩ সালটি পৃথিবীর সর্বকালের উষ্ণতম বছরে পরিণত হওয়ার পথে রয়েছে।

   

এই প্রসঙ্গে IMD-র মহা নির্দেশক মৃত্যুঞ্জয় মহাপাত্র জানিয়েছেন যে, “এল-নিনোর মতো বড় মাপের বৈশিষ্ট্যগুলি ছাড়াও আঞ্চলিক কারণগুলি যেমন পশ্চিমী ঝঞ্ঝা এবং বঙ্গোপসাগরে আসন্ন ঘূর্ণিঝড়ের উদ্ভবের মতো কারণগুলির জন্য দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। যার কারণে এটি একটি উষ্ণ শীতের মরশুমে পরিণত হবে।”

This year no more winter shivers IMD

“ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস”-এর একটি প্রতিবেদন অনুসারে, তিনি আরও জানান যে, দুর্বল এবং ধীর শৈত্যপ্রবাহ ডিসেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারির সময়কে আরও উষ্ণ করে তুলতে পারে। ইতিমধ্যেই নিরক্ষীয় প্রশান্ত মহাসাগরে নথিভুক্ত সমুদ্র পৃষ্ঠের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি উষ্ণতা সহ এল নিনোর অবস্থা বর্তমানে সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছেছে। উষ্ণ শীতে অবদান রাখার অন্যান্য কারণগুলির মধ্যে রয়েছে পশ্চিমী ঝঞ্ঝার কারণে মেঘের প্রভাব। যা সর্বনিম্ন তাপমাত্রা বাড়াতে পারে।

আরও পড়ুন: পাত্তা পাবে না গিজার, ১,৫০০ টাকায় বাড়িতে নিয়ে আসুন এই যন্ত্র, মিলবে অফুরন্ত গরম জল

IMD প্রধান আরও জানিয়েছেন যে “এছাড়াও, শীঘ্রই ঘূর্ণিঝড়ের কারণে, মেঘের প্রভাব বজায় থাকবে এবং আগামী দিনে দক্ষিণ উপদ্বীপীয় ভারত এবং পূর্ব উপকূলীয় ভারতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি থাকবে।” মহাপাত্র জানান যে, ডিসেম্বর মাসেও পারদ স্বাভাবিকের উপরে থাকবে। পাশাপাশি, পূর্ব ও উত্তর-পূর্ব ভারত ছাড়া দেশের বেশিরভাগ অংশে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি থাকবে বলে আশা করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন: ফের ২০২৩-এ সত্যি হল বাবা ভাঙ্গার ভবিষ্যদ্বাণী! ২০২৪-এ কি হতে চলেছে? জানলে উড়বে হুঁশ

এদিকে, দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে আসন্ন ঘূর্ণিঝড় “মিচং” দক্ষিণ উপকূলীয় অন্ধ্রপ্রদেশ এবং উত্তর তামিলনাড়ুর দিকে ক্রমশ অগ্রসর হয়েছে। ইতিমধ্যেই IMD একটি “রেড অ্যালার্ট” জারি করেছে এবং ৩ এবং ৪ ডিসেম্বর উপকূলীয় অন্ধ্রপ্রদেশে অত্যন্ত ভারী বৃষ্টিপাতের (২০০ মিলিমিটারের বেশি) সতর্কতা জারি করেছে। এছাড়াও, IMD সতর্ক করেছে যে, ওই ঘূর্ণিঝড়টি আগামী দিনে চেন্নাই সহ অন্ধ্রপ্রদেশ এবং উত্তর তামিলনাড়ুর উপকূলীয় জেলাগুলির পাশাপাশি তেলেঙ্গানা এবং দক্ষিণ ওড়িশাকে প্রভাবিত করতে পারে।

সম্পর্কিত খবর