‘ওর অত বড় আছে নাকি যে…!’, ভোটের মাঝেই দীপ্সিতাকে নিয়ে এ কী বললেন কল্যাণ! শোরগোল

   

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ পঞ্চম দফার ভোটের সকাল থেকেই থেকেই এলাকায় ঘুরছেন শ্রীরামপুর লোকসভা কেন্দ্রের ‘হেভিওয়েট’ তৃণমূল প্রার্থী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় (Kalyan Banerjee)। ওদিকে একেবারে রণংদেহী মেজাজে দেখা গিয়েছে সিপিএমের প্রার্থী (CPM Candidate) দীপ্সিতা ধরকে (Dipsita Dhar)। ভোট শুরু থেকেই বুথে বুথে ঘুরেছেন ঘুরছেন তরুণ বাম প্রার্থী। তবে প্রতিপক্ষ কল্যাণের দাবি, প্রার্থী তো দূর, সিপিএমের কোনও লোককেই এদিন এলাকায় দেখা যায়নি।

এর আগেও একাধিকবার দীপ্সিতাকে কটাক্ষ করেছেন কল্যাণ। কখনও কখনও ব্যক্তিগত আক্রমণ শানাতেও দেখা গিয়েছে। এবার ভোটের দিনও সেই ধারা অব্যাহত রাখলেন তৃণমূল প্রার্থী। এদিন জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী দীপ্সিতাকে কটাক্ষ করে প্রবীণ রাজনীতিক কল্যাণ বলেন, ‘জেএনইউ-তে নাচলে এখানে লোক হয় না।’ সিপিএমে কোনও ভাল লোক বা ভদ্রলোক নেই বলেও দাবি করেন তৃণমূল প্রার্থী।

এদিন সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে কল্যাণ বলেন, “কোনো লোকই নেই। জেএনইউ-তে নাচলে পরে তো আর এখানে লোক হয় না। কোথাও কোনও ঝামেলা নেই। শান্তিপূর্ণ নির্বাচন চলছে। ভোট যা হচ্ছে, তা ওর ফেভারে (পক্ষে) ভোট পড়ছে না।”

kalyan dipshita

আরও পড়ুন: বিকেলে ঝড় উঠবে কলকাতায়! টানা সাত দিন বৃষ্টিতে ভাসবে দক্ষিণবঙ্গ: আবহাওয়ার খবর

দীপ্সিতা কাকে ভোট দিলেন? শ্রীরামপুরের বিদায়ী সাংসদকে এই প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, “নিজেকে তো নিজে ভোট দেবেই। নিজেকে ভোট দেবে না তো আর কী করবে? ওর অত বড় মন আছে নাকি? যে নিজেকে ছেড়ে আমায় ভোট দেবে।” এদিন দীপ্সিতার পাশাপাশি সেলিমকে আক্রমণ করে কল্যাণ বলেন, ‘সেলিম হল বড় গুণ্ডা। মুর্শিদাবাদে কিছু পারেনি, এখানে ছকবাজি করতে এসেছিল। সিপিএমে কোনও ভদ্রলোক থাকে না। সিপিএম ঘুমিয়ে পড়েছে।’

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর