‘দ্রুত নিয়োগ চাই’, কালীঘাটে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির কাছে বিক্ষোভ আপার প্রাইমারি চাকরিপ্রার্থীদের, তুলে নিয়ে গেল পুলিশ

বাংলা হান্ট ডেস্ক : প্রাইমারি, আপার প্রাইমারি, এসএসসি থেকে শুরু করে প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রই ছেয়ে গেছে দুর্নীতিতে। দিনের পর দিন আন্দোলন করে চলেছে রাজ্যের মানুষ। যেমন দীর্ঘ ৫৫৫ দিন ধরে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করছে আপার প্রাইমারি চাকরিপ্রার্থীরা। ইন্টারভিউতে পাশ করা সত্ত্বেও নিয়োগ না হওয়ার প্রতিবাদে মাতঙ্গিনী হাজরা মূর্তির পাদদেশে চলছে অবস্থান বিক্ষোভ।

   

আর এবার সেই বিক্ষোভ কর্মসূচিই রীতিমত রণক্ষেত্রের আকার ধারণ করল যেন। এইদিন মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির অদূরেই আপার প্রাইমারি (Upper Primary) চাকরিপ্রার্থীদের অবস্থান বিক্ষোভ কর্মসূচি শুরু হতেই তৎপর হয়ে ওঠে রাজ্যের পুলিশ। বিক্ষোভকারীদের উপর লাঠিচার্জ অবধি হয় বলে খবর। সবে মিলিয়ে বেশ ধুন্ধুমার কাণ্ড হাজরা মোড়ে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বিগত ৫৫৫ দিন ধরে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করেছে আপার প্রাইমারি চাকরিপ্রার্থীরা। আন্দোলনকারীদের দাবি, চাকরির পরীক্ষা হোক স্বচ্ছতার সঙ্গে। দুর্নীতি সরিয়ে গুরুত্ব দেওয়া হোক মেধাতালিকাকে। যেখানে দিনের পর দিন রাজ্যের বিধায়কদের বেতন বৃদ্ধি হচ্ছে সেখানে স্বচ্ছতার সঙ্গে নিয়োগ হচ্ছেনা কেন? সরকারের কাছে প্রশ্ন রেখেছে আন্দোলনকারীরা।

এইদিন হাজরা মোড় থেকে কালীঘাটের দিকে মুখ্যমন্ত্রীর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) বাড়ির সমানে পৌঁছে যান কিছু চাকরি প্রার্থী। সেখানেই প্রতিবাদ দেখাতে শুরু করেন তারা‌। বিক্ষোভ কর্মসূচির সময় আন্দোলনকারীদের হাতে ছিল মুখ্যমন্ত্রীর কাছে আবেদনের পোস্টার। পুলিশ সঙ্গে সঙ্গে আন্দোলনকারীদের আটকে দেয় এবং টেনেহিঁচড়ে কিছুজনকে প্রিজন ভ্যানেও তোলে বলে খবর। শোনা যাচ্ছে সেই সাথে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির নিরাপত্তাও বাড়ানো হয়েছে।

আরও পড়ুন : সরকারি কর্মচারীদের ‘ললিপপ’ দেওয়া হল! DA বৃদ্ধির ঘোষণায় বড় ফাঁকি, বুঝিয়ে দিলেন শুভেন্দু

যদিও এটাই প্রথম নয়, এর আগে গত সেপ্টেম্বর মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির সামনে গিয়ে একইভাবে বিক্ষোভ দেখিয়েছিলেন কিছু চাকরি প্রার্থী‌। এদিকে আবার আজকের দিনেই সল্টলেকের বিকাশ ভবনে SLST প্রার্থীদের সঙ্গে বৈঠকে বসছেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। উপস্থিত থাকতে পারেন কুণাল ঘোষও।