গার্ডেনরিচের তৈরি যুদ্ধজাহাজই এবার বধ করবে চিনা সাবমেরিন! সমুদ্রে ঝড় তুলবে “অগ্রয়” ও “অক্ষয়”

বাংলা হান্ট ডেস্ক: সাম্প্রতিক সময়ে দেশের (India) প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাকে আরও উন্নত এবং শক্তিশালী করে তোলার লক্ষ্যে একের পর এক বড় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে। পাশাপাশি, সেনাবাহিনীর তিনটি ক্ষেত্রকেই ঢেলে সাজানো হচ্ছে। যেটি নিঃসন্দেহে চিন্তা বাড়াচ্ছে শত্রুদেশের। তবে সেই রেশ বজায় রেখেই, ফের একটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সামনে এসেছে। মূলত, এবার নয়া নজির তৈরি করেছে গার্ডেনরিচ শিপ বিল্ডার্স (Garden Reach Shipbuilders)।

   

এই প্রসঙ্গে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে, চিনকে রুখতে এবার জোড়া ASWSWC যুদ্ধজাহাজ নির্মাণ করেছে সংস্থাটি। শুধু তাই নয়, বুধবার এই জোড়া যুদ্ধজাহাজের উদ্বোধনও হয়ে গেল মহাসমারোহে। ওই যুদ্ধজাহাজ গুলির নাম রাখা হয়েছে “অগ্রয়” ও “অক্ষয়”। এদিকে, এই উদ্বোধন উপলক্ষ্যে বিশেষ অনুষ্ঠানেরও আয়োজন করা হয়েছিল।

Warships made by Garden reach will counter Chinese submarines this time

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, শীঘ্রই সাবমেরিন বিধ্বংসী রণতরী “INS অগ্রয়” এবং “INS অক্ষয়”-কে নৌসেনাকে হস্তান্তর করা হবে। শুধু তাই নয়, এগুলি শত্রুপক্ষের সাবমেরিনের গতিবিধির দিকেও কড়া নজর রাখবে। এমনিতেই বর্তমান সময়ে, ভারত মহাসাগরে চিনের গুপ্তচর জাহাজের আনাগোনা বৃদ্ধি পাচ্ছে। এমতাবস্থায়, ভারতের এই যুদ্ধজাহাজগুলি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

আরও পড়ুন: অশ্লীল কনটেন্টের রমরমা! অভিযোগ পেয়েই কড়া অ্যাকশন কেন্দ্রের, ব্লক করা হল ১৮ টি OTT, ১৯ টি ওয়েবসাইট

এদিকে, এই যুদ্ধজাহাজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বায়ুসেনা প্রধান বিবেক রাম চৌধুরী। পাশাপাশি, যুদ্ধজাহাজগুলির উদ্বোধন করেন বায়ুসেনা প্রধানের স্ত্রী তথা এয়ার ফোর্স ওয়েলফেয়ার অ্যসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট নীতা চৌধুরী। জানিয়ে রাখি যে, “INS অগ্রয়” জাহাজটির কার্যকাল শেষ হওয়ার পর সেটিকে ২০১৭ সালে নষ্ট করে ফেলা হয়। এদিকে, ২০২২ সালে “INS অক্ষয়” জাহাজটিকে বিকল করা হয়।

আরও পড়ুন: পল ভালথাতি শুরু করে বিসলা, IPL কাঁপানো এই চার প্লেয়ার আজ কোথায়? তালিকায় রয়েছে বড় চমক

তবে, গত বুধবার কার্যত ওই জাহাজগুলির পুর্নজন্ম ঘটল। যার সাক্ষী থাকল কলকাতা বন্দর। পাশাপাশি, নতুন এই যুদ্ধজাহাজগুলির মাধ্যমে ভারত যে প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে আরও শক্তিশালী হল সেই বিষয়টি আর বলার অপেক্ষা রাখে না। এই প্রসঙ্গে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্যও রাখেন বায়ুসেনা প্রধান। পাশাপাশি, গার্ডেনরিচ শিপ বিল্ডার্সের সিএমডি পি আর হরি বিশেষ স্মারকও তুলে দেন বায়ুসেনা প্রধান বিবেক রাম চৌধুরীর হাতে।

Sayak Panda
Sayak Panda

সায়ক পন্ডা, মেদিনীপুর কলেজ (অটোনমাস) থেকে মাস কমিউনিকেশন এবং সাংবাদিকতার পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স করার পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর