চাঁদের বুকে এবার দ্বিতীয় অবতরণ বিক্রমের! ঠিক কি কাণ্ড ঘটালেন ISRO-র বিজ্ঞানীরা? জানলে চমকে উঠবেন

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক: গত ২৩ অগাস্ট সন্ধ্যে ৬ টা ৪ মিনিটে সফলভাবে চাঁদের মাটি ছুঁয়েছিল চন্দ্রযান-৩ (Chandrayaan-3)। যার জেরে ইতিহাস তৈরি করেছিল ভারত। তবে, এবার ফের একবার চাঁদের মাটিতে সফলভাবে অবতরণ করল বিক্রম! হ্যাঁ, বিষয়টি জেনে প্রথমে অবাক হয়ে গেলেও এটা কিন্তু একদমই সত্যি। সবথেকে উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, ইতিমধ্যে ISRO-র তরফেও এই বিষয়টি সামনে আনা হয়েছে। এমতাবস্থায়, চলুন জেনে নিই ঠিক কি ঘটেছে?

মূলত, এবার ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা বিক্রম ল্যান্ডারের সঙ্গে একটি “Hop Experiment” সম্পন্ন করল। এতদিন পর্যন্ত সবাই ভেবেছেন যে চন্দ্রপৃষ্ঠে কাজকর্ম সেরে চাঁদের মাটিতেই থেকে যাবে ল্যান্ডার। কিন্তু এবার সেই ধারণার পরিবর্তনের ক্ষেত্রে কিছুটা হলেও আশার আলো দেখতে পেলেন ISRO-র বিজ্ঞানীরা।

শুধু তাই নয়, বিক্রম ল্যান্ডারের ইঞ্জিনকে সচল করে তাকে চন্দ্রপৃষ্ঠ থেকে ৩০ থেকে ৪০ সেমি ওপরে তুলে অবতরণ করানো হয়েছে আগের স্থান থেকে প্রায় ৪০ সেমি দূরে। ইতিমধ্যেই সেই চমকপ্রদ ভিডিওটি ISRO-র তরফে সামনের আনা হয়েছে। সবথেকে উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, পুরো কাজটাই সম্পন্ন হয়েছে একদম সুষ্ঠুভাবে।

আরও পড়ুন: সকালবেলায় চাঁদের মাটিতে বিক্রম ল্যান্ডারের ছবি তুলল প্রজ্ঞান, টুইট করে সবাইকে দেখাল ISRO

পাশাপাশি, বিক্রমও রয়েছে একদম ফিট। উল্লেখ্য যে, চাঁদের পৃষ্ঠ থেকে ওপরে তোলার সময় ChaSTE, ILSA-এই দুই ব়্যাম্পকে গুটিয়ে নেওয়া হলেও ওই এক্সপেরিমেন্ট হয়ে যাওয়ার পর সেগুলিকে ফের সচল করা হয়েছে বলেও জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন: চন্দ্রযান ৩-এর সাফল্যের পর এল বড় তথ্য! ভারতে এইভাবে তৈরি হয়েছে ৪৫,০০০ কর্মসংস্থান, কি জানাল ISRO?

এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি যে, ISRO-র তরফে আগেই জানানো হয়েছিল যে, মোট এক চন্দ্রদিনের কাজের “অ্যাসাইনমেন্ট” নিয়ে চাঁদে গিয়েছে বিক্রম ও প্রজ্ঞান। এদিকে, এক চন্দ্রদিন মানে হল পৃথিবীর ১৪ দিন। এমতাবস্থায়, প্রথমে ISRO-র তরফে জানানো হয়, বিক্রম ল্যান্ডার ও রোভারকে ঘুম পাড়ানোর প্রক্রিয়া দু’এক দিনের মধ্যে শুরু করা হবে। যদিও শনিবার রাতেই এক্স-হ্যান্ডেলে ISRO জানিয়ে দেয় যে সেই কাজ সঠিকভাবে সম্পন্ন হয়েছে। পাশাপাশি, বিক্রমের পেটের ভেতর ঢুকে বিশ্রাম নিচ্ছে প্রজ্ঞান রোভার। তবে, সেই আপডেটের পরেই সোমবার সকালে বিক্রমের দ্বিতীয় অবতরণের বিষয়টি সামনে আনল ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা।

https://twitter.com/isro/status/1698570774385205621?s=48&t=H-35pzf62xpOvQoyCyAm4w

দ্বিতীয় অবতরণের ফলে কি লাভ হল: এই প্রসঙ্গে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন যে, এটি চন্দ্রযানের ল্যান্ডারকে চাঁদের মাটি থেকে ফেরানোর ভাবনার বিষয়ে একটি ছোট্ট পদক্ষেপ। পাশাপাশি, এর মাধ্যমে সুদূর ভবিষ্যতে চাঁদে মানুষ পাঠানোর ভাবনার ক্ষেত্রেও এক ধাপ এগোনো গেল বলেও অনুমান করা হচ্ছে।

Sayak Panda
Sayak Panda

সায়ক পন্ডা, মেদিনীপুর কলেজ (অটোনমাস) থেকে মাস কমিউনিকেশন এবং সাংবাদিকতার পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স করার পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর