আদালতে পেশ করা হচ্ছে না! কী এমন আছে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের চিঠিতে? এবার ফাঁস করল ED

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ রেশন দুর্নীতি মামলায় (Ration Scam) এই মুহূর্তে জেল বন্দি পশ্চিমবঙ্গের প্রাক্তন খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক (Jyotipriya Mallick)। তাঁর থেকে পাওয়া একটি চিঠির সূত্রে গ্রেফতার করা হয় বনগাঁ পুরসভার প্রাক্তন চেয়ারম্যান শঙ্কর আঢ্যকে। জ্যোতিপ্রিয়র সঙ্গে শঙ্করের ‘ব্যবসায়িক সম্পর্কে’র কথা আগেই উল্লেখ করা হয়েছিল! কিন্তু সেই চিঠি আদালতে কেন পেশ না করার পাশাপাশি এই সংক্রান্ত কোনও নথিও দিচ্ছে না এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ED), এবার আদালতে অভিযোগ জানালেন অভিযুক্তদের আইনজীবীরা।

   

মঙ্গলবার বিচার ভবনের বিশেষ সিবিআই আদালতে এই মামলার শুনানি ছিল। সেখানে অন্যতম অভিযুক্ত শঙ্কর আঢ্য (Shankar Adhya) এবং বিশ্বজিৎ দাসকে পেশ করা হয়। তাঁদের জামিনের আবেদন জানানো হলেও বিচারপতি তা খারিজ করে দেন। শঙ্করের আইনজীবী এদিন বলেন, ইডির তরফ থেকে জানানো হয়েছে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের চিঠির (Jyotipriya Mallick Letter) সূত্রে তাঁর মক্কেলকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাহলে এখনও সেই চিঠি আদালতে কেন পেশ করা হল না? এক্ষেত্রে ইডির ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়।

চুপ থাকেনি এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের আইনজীবীরাও। তাঁরা জানান, সেই চিঠিতে এক নয়, একাধিক নাম রয়েছে। রেশন দুর্নীতির টাকা কীভাবে কোথায় পাচার করা হয়েছে সেই সংক্রান্ত তথ্য আছে সেখানে। তাই সেই চিঠি যদি এই মুহূর্ত প্রকাশ্যে আনা হয় তাহলে তদন্ত প্রক্রিয়া ব্যাহত হতে পারে। ইডি দাবি করে, এই চিঠি রেশন দুর্নীতি মামলার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ‘হাতিয়ার’।

আরও পড়ুনঃ হোয়্যাটসঅ্যাপ মেসেজ থেকেই…! মুখ্যমন্ত্রীর নাম করে ‘খেলা খেলল’ কে? কড়া পদক্ষেপ নিলেন মমতা

প্রসঙ্গত, গত বছর ডিসেম্বর মাসে এমএমকেএম হাসপাতালে ভর্তি থাকাকালীন মেয়ের হাতে একটি চিঠি দিয়েছিলেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। তবে সেই চিঠি নিয়ে যেতে পারেননি জ্যোতিপ্রিয়-কন্যা। কর্তব্যরত জওয়ানরা প্রাক্তন খাদ্যমন্ত্রীর দেওয়া সেই চিঠি বাজেয়াপ্ত করে। এরপর তা তুলে দেওয়া হয় ইডির হাতে। সেই সূত্রেই গ্রেফতার হন বনগাঁ পুরসভার প্রাক্তন চেয়ারম্যান শঙ্কর আঢ্য।

jyotopriya mallick shankar adhya ration scam

অসুস্থতার কারণে এদিন ভার্চুয়ালি শঙ্করকে পেশ করা হয়। দুই অভিযুক্তের আইনজীবীই আদালতের কাছে জামিনের আর্জি জানান। তবে ইডি সেই আর্জির বিরোধিতা করে। জানানো হয়, মুদ্রা বিনিয়ম সংস্থা ও হাওয়ালার মাধ্যমে বিদেশে প্রায় ৩০০ কোটি টাকা পাচার করেছেন বিশ্বজিৎ। তদন্তে নয়া তথ্য উঠে আসছে। সেই কারণে তাঁকে জামিন না দেওয়ার আর্জি জানায় ইডি।

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর