১৯ বছর ধরে চলছে অপেক্ষা! কাঙাল পাকিস্তানের দারিদ্রতা কি দূর করবে এই ৬ টি দেশ?

বাংলা হান্ট ডেস্ক: বর্তমান সময়ে পাকিস্তান (Pakistan) যে ভয়াবহ আর্থিক সঙ্কটের (Financial Crisis) মধ্যে রয়েছে সেই সম্পর্কে সকলেই অবহিত। তবে, এবার কাঙাল পাকিস্তানের কাছে দারিদ্র দূর করার জন্য একমাত্র ভরসা হল ইসলামিক দেশগুলি। প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে, পাকিস্তানের অন্তর্বর্তী সরকার মুসলিম দেশগুলির সঙ্গে একটি চুক্তি করার প্রস্তুতি নিচ্ছে, যাতে ওই দেশের সামগ্রিক পরিস্থিতির উন্নতি হয়। মূলত, পাকিস্তান গল্ফ কো-অপারেশন কাউন্সিল (GCC) এবং ফ্রি ট্রেড এগ্রিমেন্টে স্বাক্ষর করতে পারে। এটি গত ১৯ বছর ধরে অমীমাংসিত রয়েছে।

   

এই প্রসঙ্গে ডনের রিপোর্ট অনুসারে, পাকিস্তান এবং সৌদি আরব বিনিয়োগের পদ্ধতিগুলিতে একমত হয়েছে। যার ফলে GCC-র সাথে একটি ফ্রি ট্রেড এগ্রিমেন্টের পথ প্রশস্ত হয়েছে। এটি ১৯ বছর ধরে অমীমাংসিত ছিল। ওই রিপোর্টে আরও দাবি করা হয়েছে, শনিবার রিয়াদে এই সংক্রান্ত একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক হয়েছে। আর ওই চুক্তি থেকেই স্বস্তি পেতে পারে পাকিস্তান।

GCC ও ফ্রি ট্রেড এগ্রিমেন্ট: জানিয়ে রাখি যে, গল্ফ কো-অপারেশন কাউন্সিলে ৬ টি উপসাগরীয় দেশ রয়েছে। তাদের লক্ষ্য ফ্রি-ট্রেড এগ্রিমেন্টের মাধ্যমে ইসলামিক দেশগুলিতে বাণিজ্যের প্রসার ঘটানো। এই ৬ টি দেশের মধ্যে রয়েছে সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরশাহী, কাতার, কুয়েত, বাহরিন ও ওমান। এদিকে এইসব দেশগুলি ভারতেরও ব্যবসায়িক অংশীদার। সৌদি আরব হল GCC-র বৃহত্তম দেশ। তাই, ওই সংগঠনে দেশটির প্রতিটি মতামত গুরুত্বপূর্ণ।

আরও পড়ুন: চমক IIT খড়্গপুরের! প্লেসমেন্ট সেশনের প্রথম দিনেই চাকরির ঝড়, কোটি টাকার চাকরি পেলেন একাধিক

এবার জেনে নেওয়া যাক ফ্রি ট্রেড এগ্রিমেন্টের বিষয়ে। যখন দুই দেশের মধ্যে আমদানি ও রপ্তানিকৃত পণ্যের ওপর শুল্ক, ভর্তুকি এবং নিয়ন্ত্রক আইনে অব্যাহতি দেওয়া হয় বা সহজ করা হয়, তখন একে ফ্রি ট্রেড এগ্রিমেন্ট বলে। এর সহজ লক্ষ্য হল দেশগুলির মধ্যে এমন একটি পরিবেশ তৈরি করা যেখানে বাণিজ্যের প্রসার ঘটানো যেতে পারে।

আরও পড়ুন: Bitcoin-এই বিপুল লক্ষ্মীলাভ! অতিক্রম করল ৪০,০০০ ডলারের স্তর, আপনিও কি করেছেন বিনিয়োগ?

কেন ১৯ বছর অপেক্ষা করছে পাকিস্তান: উল্লেখ্য যে, ২০০৪ সাল থেকে, পাকিস্তান GCC-এর অন্তর্গত উপসাগরীয় দেশগুলির সাথে একটি ফ্রি ট্রেড এগ্রিমেন্ট করার জন্য সংগ্রাম করছে। ২০০৪ সাল থেকেই পাকিস্তান ওই সংগঠনের সাথে কয়েক দফা বৈঠকও করে। কিন্তু পাকিস্তানি নীতির কারণে তা সম্ভব হয়নি। তারপরে পাকিস্তানের তেহরিক-ই-ইনসাফ সরকার ২০২১ সালে আবার নতুন করে চেষ্টা করেছিল। কিন্তু সৌদি আরব তাতে রাজি হয়নি। আর সেই কারণেই পাকিস্তানকে অপেক্ষা করতে হয়।

Will these 6 countries eliminate poverty in poor Pakistan

আসলে, এই চুক্তির জন্য সমস্ত GCC দেশের অনুমোদনও প্রয়োজন। এমতাবস্থায়, যদি এই চুক্তি হয় তবে তা পাকিস্তানের জন্য একটি বড় স্বস্তি হবে। কারণ নিয়মে বলা হয়েছে যে, তারা দেশে তৈরি পণ্যগুলি কোনো কর ছাড়াই GCC-র দেশগুলিতে পাঠাতে পারবে।

সম্পর্কিত খবর