টাইমলাইনভারতরাজনীতি

‘বিজেপিতে সবাই স্বচ্ছ, কেউ দুর্নীতিগ্রস্ত নয়’, রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের মুখে একি বললেন যশবন্ত সিনহা!

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ আসন্ন রাষ্ট্রপতি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বর্তমানে সরগরম রয়েছে দেশের রাজনীতি। কেন্দ্র এবং বিরোধী দুই পক্ষই শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি সেরে ফেলতে তৎপর হয়ে রয়েছে। একদিকে যখন বিজেপি সরকার দ্রৌপদী মুর্মুকে রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত করেছে, অপরদিকে বিরোধীদের তুরুপের তাস প্রাক্তন বিজেপি নেতা যশবন্ত সিনহা। আর এই পরিস্থিতির মুখে নিজের প্রাক্তন দলকে বেনজির আক্রমণ করে বসলেন যশবন্তজী।

উল্লেখ্য, এদিন সকালে রাষ্ট্রপতি পদে সমর্থনের প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে যোগাযোগ করেন যশবন্ত সিনহা। তবে তাঁর সঙ্গে কথা না হলেও পরবর্তীকালে জেপি নাড্ডা, লালকৃষ্ণ আদবানি এবং একদা সতীর্থ ও প্রিয় বন্ধু রাজনাথ সিংহের সঙ্গে ফোনালাপ করেন তিনি। যদিও এরপরেই কেন্দ্র সরকারের উদ্দেশ্যে একের পর এক আক্রমণের তীর শানান প্রাক্তন বিজেপির এই সাংসদ।

বিশেষত মহারাষ্ট্রে অস্বস্তিকর পরিবেশের কথাই এদিন তাঁর মন্তব্যে প্রকাশ পায়। উল্লেখ্য, বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়ে শিবসেনা জোটের পক্ষে মহারাষ্ট্রের বুকে ক্ষমতা টিকিয়ে রাখাই মুশকিল হয়ে দাঁড়িয়েছে। যেভাবে একের পর এক নেতা দলের বিরুদ্ধে চলে গিয়েছেন, তাতে ক্রমশই তাদের সরকার পতনের সম্ভাবনা উজ্জ্বল হয়ে উঠেছে আর এর পেছনে অনেকেই বিজেপিকে দায়ী করেছে। সেই প্রসঙ্গে এদিন বিজেপিকে কটাক্ষ করে যশবন্ত সিনহা বলেন, “বিজেপির মূল স্টাইল হলো যেকোন রাজ্যে সরকারকে ভেঙে দেওয়া। এইজন্য তারা সিবিআই থেকে ইডির মতো একাধিক সরকারি সংস্থাগুলিকে ব্যবহার করে চলেছে। বর্তমানে এদের সকলের বিরুদ্ধে আমি লড়াই করবো। হয়তো এর জন্য আমাকে একাধিক বাধা-বিপত্তির মুখে পড়তে হতে পারে। কিন্তু আমি কাউকে ভয় পাই না।”

এর পরেই তিনি ভারতীয় জনতা পার্টিকে বেনজির আক্রমণ করে বলেন, “বিজেপিতে সবাই স্বচ্ছ। কেউ দুর্নীতিগ্রস্ত নয় আর সেই কারণেই সিবিআই এবং ইডির মত সংস্থাগুলি কেবল অন্যদের পেছনে পড়ে থাকে।”

Related Articles

Back to top button