বছর শেষে নক্ষত্র পতন! মারণরোগের কাছে হার মানলেন ‘করুণাময়ী রাণী রাসমণি’ খ্যাত অভিনেতা

বাংলা হান্ট ডেস্ক : বর্ষশেষে দুঃসংবাদ। বিয়ের মরশুমের মাঝেই ঘটল ছন্দপতন। দীর্ঘ লড়াইয়ের পর মারণ রোগ ক্যান্সারের (Cancer) কাছে হার মানলেন জি বাংলার  (Zee Bangla) ‘রাণী রাসমণি’ (Rani Rashmoni) খ্যাত অভিনেতা। বিগত বহুদিন ধরেই ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করছিলেন তিনি। তবে বছর শেষ হওয়ার সাথে ফুরিয়ে এল অভিনেতার জীবন প্রদীপ। ২২ শে ডিসেম্বর মারণরোগ ক্যানসারের সঙ্গে লড়াই থামল কিংশুকের।

   

বিগত বহুদিন ধরেই ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করছিলেন অভিনেতা। গত শুক্রবার ছিল সেই লড়াইয়ের শেষদিন। মারণরোগে কাছে সমর্পণ করলেন নিজেকে। এইদিন সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিনেতার মৃত্যুর খবরটি নিশ্চিত করেছেন ইন্ডাস্ট্রির সহকর্মী কাঞ্চনা মৈত্র ও হৃতজিৎ চট্টোপাধ্যায়।

এইদিন হৃতজিৎ প্রয়াত অভিনেতার উদ্দেশ্যে লেখেন, ‘ভালো থেকো দাদা। একসঙ্গে অনেকদিন কাজ করার অভিজ্ঞতা। অন্যতম হিট মেগা আমার দুর্গা সিরিয়ালে…। চিরশান্তিতে থেকো।’ অভিনেতার আত্মার শান্তি কামনা করে কাঞ্চনা মৈত্র লেখেন, ‘নিজের স্বপ্ন নিয়ে লড়াই করার মতো একজন মানুষ চলে গেল। যেখানেই থেকো ভালো থেকো। আমি বিশ্বাস করি তাই বললাম তোমার পরের জার্নিতে সব স্বপ্ন পূরণ হোক। শান্তিতে থেকো বলব না, শুধু বলব যাত্রাটা শুভ হোক।’

আরও পড়ুন : রাত পোহালে ভোলবদল! ফের খেল দেখাবে অকাল বৃষ্টি, রইল আবহাওয়ার সব থেকে বড় আপডেট

উল্লেখ্য, জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘করুণাময়ী রাণী রাসমণি’ ধারাবাহিকের গোবিন্দ সাত্রা চরিত্রে নজর কেড়েছিলেন কিংশুক। এছাড়াও ‘আমার দুর্গা’, ‘গুড্ডি’, ‘উমার সংসার’, ‘দেবী চৌধুরানী’, ‘রাম প্রসাদ’-রং মত ধারাবাহিকে নিজের ক্যারিশমা দেখিয়েছেন তিনি। অভিনয় করেছেন একাধিক টেলিফিল্মেও।

আরও পড়ুন : বিচারপতি সিনহার স্বামীকে বারবার তলব! CID-র গতিপ্রকৃতি নিয়ে প্রশ্ন অভিজিৎ গাঙ্গুলির

kin 1703270242703 1703270250517

ধারাবাহিক, টেলিফিল্মের পাশাপাশি তিনি হাত পাকিয়েছেন পরিচালনাতেও। ‘দ্য হিউম্যানিটি’ নামক একটি শর্ট ফিল্ম পরিচালনা করেছিলেন তিনি‌। এইদিন রাহুল অরুণোদয় ব্যানার্জী লেখেন, ‘আরেকজন চলে গেল যে আমার ডাকনাম জানত ,আমার স্কুল সিনিয়র ,সুহৃদ,সহযাত্রী কিংশুক চলে গেছে.ভালো থেক বলব না কারণ আমাদের রাজনৈতিক অবস্থান,এটা কি করলেও বলবো না,কারণ ঐরকম ন্যাকামি করলে ঈশ্বরকে/বিজ্ঞানকে ছোট করা হয়..শুধু বলব জীবনের শেষদিন অবধি সবাই যেন ভালোবাসায় থাকে,আয়ু তার যাই হোক।’