নতুন বাইক কেনার আগে অবশ্যই চেক করুন এই ৫ টি বিষয়, নাহলেই পড়বেন বিপদে

বাংলা হান্ট ডেস্ক: বর্তমান সময়ে গ্রাম হোক কিংবা শহর প্রায় প্রতিটি বাড়িতেই রয়েছে বাইক (Motorcycle)। যাতায়াতের ক্ষেত্রে এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। পাশাপাশি, গ্রাহকদের চাহিদা এবং যুগের সাথে তাল মিলিয়ে একের পর এক দুর্দান্ত বাইক বাজারে আনছে প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলি। তবে, নতুন বাইক (New Bike) কেনার ক্ষেত্রে অবশ্যই কিছু বিষয়ের প্রতি সতর্ক থাকতে হয়। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই দেখা যায় যে, অনেকে সেগুলি সম্পর্কে অবহিত না হয়েই বাইক কিনে ফেলেন। যা পরবর্তীকালে অসুবিধের সৃষ্টি করতে পারে। এমতাবস্থায়, বর্তমান প্রতিবেদনে আজ আমরা নতুন বাইক কেনার আগে গুরুত্বপূর্ণ পাঁচটি বিষয় চেক করে নেওয়ার বিষয়ে জানাবো। তাই আপনিও যদি নতুন বাইক কেনার কথা ভেবে থাকেন তাহলে এই প্রতিবেদনটি আপনার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

মাথায় রাখতে হবে এই বিষয়গুলি:

   

এখন বাজারে একের পর এক দুর্ধর্ষ বাইকের বিকল্প উপলব্ধ রয়েছে। আপনি আপনার বাজেট অনুযায়ী খুব সহজেই সেগুলির মধ্যে একটিকে নির্বাচন করতে পারেন। তবে, বাইক কেনার ক্ষেত্রে যে বিষয়গুলি মাথায় রাখতে হয় সেগুলির মধ্যে অন্যতম হল বাইকটির অ্যাক্সেসরিজের জোগান, রাইড কোয়ালিটি, ফুয়েল এফিসিয়েন্সি এবং রিসেল ভ্যালু। এই বিষয়গুলি ঠিক থাকলে আপনি বাইকটি কিনতে পারেন।

১. বাজেট: যেহেতু বাজারে বিভিন্ন দামের বাইক উপলব্ধ রয়েছে, তাই আপনি আগে থেকেই আপনার বাজেট ঠিক করে রাখুন। এর ফলে আপনার পক্ষে বাইক নির্বাচন করার প্রক্রিয়াটি অত্যন্ত সহজ হয়ে উঠবে।

আরও পড়ুন: ২২ বিলিয়ন থেকে ৩ বিলিয়ন ডলারের কমে নামল ভ্যালুয়েশন! করুণ অবস্থা Byju’s-এর

২. ফিচার্স: বাইক নির্বাচনের প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলে আপনাকে বাইকের ফিচার্সগুলির বিষয় ও সঠিক ধারণা রাখতে হবে। সেক্ষেত্রে আপনাকে নজর দিতে হবে বাইকের ইঞ্জিন ক্যাপাসিটি, মাইলেজ, ওজন এবং ডিজাইনের দিকে।

আরও পড়ুন: উত্তরবঙ্গ যাওয়ার টিকিট হবে কনফার্ম, স্পেশ্যাল ট্রেনের ঘোষণা রেলের! শিয়ালদহ থেকে চলবে এই সময়ে

৩. টেস্ট ড্রাইভ: বাইক কেনার আগে অবশ্যই টেস্ট ড্রাইভ করতে ভুলবেন না। এর মাধ্যমে আপনি বাইকের স্পিড সম্পর্কে ধারণা লাভের পাশাপাশি রাইড কোয়ালিটিও বুঝতে পারবেন। অর্থাৎ বাইকটি কেনার আগেই সেটিতে রাইড করার অভিজ্ঞতা আপনি টেস্ট ড্রাইভের মাধ্যমে পাবেন।

Check these 5 things before buying a new bike

৪. বাইকের ওয়ারেন্টি এবং সার্ভিস পলিসি: এছাড়াও জানিয়ে রাখি যে, বাইক কেনার সময় অবশ্যই সেটির ওয়ারেন্টি এবং সার্ভিস পলিসি চেক করতে ভুলবেন না।

৫. রিসেল ভ্যালু: পাশাপাশি আপনাকে বাইকটির রিসেল ভ্যালুর দিকেও নজর দিতে হবে। এক্ষেত্রে আপনি যদি ভবিষ্যতে আপনার বাইকটি বিক্রি করতে চান সেক্ষেত্রে আপনি একটি ভালো রিসেল ভ্যালু পেতে পারেন। তাই, বাইক কেনার আগে অবশ্যই এই বিষয়গুলি মাথায় রাখুন।

সম্পর্কিত খবর