বাতিল ২৫৩ বিএড কলেজের অনুমোদন, খবর নেই উচ্চশিক্ষা দফতরের কাছে! তরজা তুঙ্গে

বাংলা হান্ট ডেস্ক : বছর ঘুরতেই লোকসভা নির্বাচন, আর তার আগেই নানাবিধ বদল শুরু হয়েছে বঙ্গে (West Bengal)। ২৫৩টি বিএড কলেজের (253 B Ed College) অনুমোদন বাতিল (Registration Cancelled) করা নিয়েও শুরু হয়েছে তরজা। তবে এবার আর বৈঠক বা আবেদন কোনোকিছুতেই কাজ হবেনা বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছে বিএড বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্বর্তীকালীন উপাচার্য সোমা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিকে বিষয়টির উপর প্রশ্ন তুলেছে উচ্চশিক্ষা দফতরের আধিকারিকরা।

উল্লেখ্য, এইদিন সোমা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন, ‘গত ৩রা অগস্ট উচ্চশিক্ষা দফতরের সচিবকে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে এবার বিএড বিশ্ববিদ্যালয় কী কী কারণের জন্য বেসরকারি বিএড কলেজগুলির অনুমোদন বাতিল করবে।’ সেই চিঠি প্রাপ্তির কথা স্বীকারও করেছে উচ্চশিক্ষা দফতর। তবে দফতরের দাবি, কতগুলি কলেজের অনুমোদন বাতিল করেছে বিএড বিশ্ববিদ্যালয়, সেই সম্পর্কে কোনও নথী নাকি মেলেনি।

এমনকি ঠিক কোন কোন কারণের জন্য ২৫৩ টি বিএড কলেজের অনুমোদন বাতিল হল সেই সম্পর্কেও নাকি কোনও নির্দিষ্ট তথ্য উচ্চশিক্ষা দফতরে জানানো হয়নি বলে অভিযোগ। কার্যত এই নিয়ে বিতর্কের ঝড় উঠেছে রাজ্যে। যদিও গত সোমবার সোমা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন, ‘গত ৩০শে জুন বিশ্ববিদ্যালয়ের এক্সিকিউটিভ কাউন্সিলের বৈঠকে কলেজগুলির অনুমোদন কী কী কারণে বাতিল করা হবে তা নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’

আরও পড়ুন : মাস্টারস্ট্রোক মোদীর! আসছে ২৪ হাজার কোটি টাকার স্কিম, বিশেষ সুবিধা পাবেন দেশের কোটি কোটি জনতা

এদিকে রাজ্য বিএড বিশ্ববিদ্যালয়ের সরকার পক্ষের কোর্ট মেম্বার মনোজিৎ মণ্ডল দাবি করেন, ‘২৫৩টি বিএড কলেজের ছাত্র ভর্তির বিষয়ে সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রারকে মেল করেছি। বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুয়ায়ী কর্মসমিতির বৈঠকে সিদ্ধান্ত নিয়ে তবেই অনুমোদন বাতিল হতে পারে। এই নিয়ে কর্মসমিতির বৈঠক হয়নি।’

আরও পড়ুন : হবু বরের বুকে মাথা দিয়ে আদুরে ছবি! বিছানায় অন্তরঙ্গ হয়ে ভিডিও পোস্ট করলেন নন্দিনী দিদি

এই মেইল প্রসঙ্গে সোমা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘কালী পুজোর ছুটির দিন রেজিস্ট্রারকে চিঠি পাঠানো হল কেন? এই চিঠি সম্পর্কে রেজিস্ট্রার জানলেন কি জানলেন না তার আগে সমাজমাধ্যমে লেখা হল। সংবাদমাধ্যমকে সব বলা হল। এর পিছনে কী উদ্দেশ্য আছে? বিশ্ববিদ্যালয় খুলুক, তার পর এই নিয়ে যা বলার বলব।’

আরও পড়ুন : উৎসবের মরশুমে দারুণ সুখবর দিল ভারতীয় রেল! বুধবার থেকে বাংলার এই রুটে নয়া বন্দে ভারত

তিনি আরও জানান, কলেজের পড়াশোনার মান ঠিক রাখার জন্যই এই সিদ্ধান্ত। তালিকায় থাকা কিছু কলেজের পরিকাঠামো নাকি এতটাই খারাপ যেখানে পড়াশোনার নূন্যতম পরিবেশটুকুও নাকি নেই। একাধিক বেসরকারি বিএড কলেজের বিরুদ্ধে ভুয়ো সার্টিফিকেট দেওয়া পর্যন্ত অভিযোগ জানিয়েছেন সোমা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি আরও জানিয়েছেন, কতগুলি কলেজের অনুমোদন বাতিল করা হবে সেটি বিশ্ববিদ্যালয় নিজস্ব সিদ্ধান্ত। এ সম্পর্কে দফতরকে জানানোর প্রয়োজন পড়েনা।