‘ভারত মাতার জয়’, কাতার থেকে ফিরেই মোদীকে ধন্যবাদ জানালেন মৃত্যুদণ্ড থেকে রেহাই পাওয়া ৮ নৌসেনিক

বাংলা হান্ট ডেস্ক : কাতারে (Qatar) মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ৮ ভারতীয় নৌ সেনাকে (8 Indian Navy) বেকসুর খালাস করেছে কাতার সরকার (Qatar Government)। ইতিমধ্যেই ৭ নৌ সৈনিক নয়া দিল্লি (New Delhi) ফিরেও এসেছেন বলে খবর। দেশে ফিরেই নৌ আধিকারিকরা জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi) হস্তক্ষেপ ছাড়া তাদের পক্ষে ভারতে (India) ফেরা অসম্ভব ছিল। ভারত সরকারের (Government Of India) প্রতিটি প্রচেষ্টাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তারা।

   

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, কাতারের গোয়েন্দা বিভাগের সন্দেহ ছিল, এই আট প্রাক্তন ভারতীয় নৌ সেনা ইজরায়েলের চর। ইজরায়েলের হয়ে গুপ্তচরবৃত্তি করার জন্য কাতারে এসেছেন তারা। এই সন্দেহেই ঐ আট প্রাক্তন নৌ সেনাকে গ্রেফতার করে কাতার পুলিশ। এরপরেই কাতার আদালতে তাদের মৃত্যুদণ্ডের রায় দেওয়া হয়। তারপর থেকে প্রায় এক বছর কাতারের জেলে বন্দি ছিলেন এই ৮ নৌসেনা।

কাতার আদালতের এই রায়ের বিষয়টি নিয়ে কূটনৈতিক স্তরে আলোচনা হয় ভারত-কাতারের মধ্যে। কূটনৈতিক তৎপরতার মাধ্যমে ভারত সরকার ওই আট ভারতীয়র মৃত্যদণ্ড বাতিল করাতে সক্ষম হয়। এবং অবশেষে সমস্ত প্রচেষ্টাকে সার্থক করে দেশে ফিরছেন মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ৮ আধিকারিক। মধ্যপ্রাচ্যের দেশ কাতারে দীর্ঘ ১৮ মাস কারাভোগ করার পর তারা দেশে ফেরেন। বিমানবন্দরে ফিরেই ‘ভারত মাতা কি জয়’ স্লোগান দিয়ে চেঁচিয়ে ওঠেন প্রাক্তন আধিকারিকরা।

আরও পড়ুন : মোদীর হস্তক্ষেপেই হল কাজ! কাতার থেকে মুক্তি পেলেন মৃত্যুদণ্ড পাওয়া ৮ নৌসেনার জওয়ান

মুক্তিপ্রাপ্ত নৌ সেনারা জানাচ্ছেন, ‘আমরা ভারতে ফিরে আসার জন্য ১৮ মাস অপেক্ষা করেছি। আমরা প্রধানমন্ত্রী মোদীর কাছে অত্যন্ত কৃতজ্ঞ। প্রধানমন্ত্রী মোদীর সমর্থন ছাড়া এটা অসম্ভব ছিল। আমরা ভারত সরকারের প্রতিটি প্রচেষ্টাকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাই। ভারত সরকারের প্রচেষ্টা ছাড়া এই দিনটি সম্ভব হতো না।’

আরও পড়ুন : রাজ্যসভায় BJP-র ১৪ প্রার্থীর তালিকা প্রকাশ, মুখপাত্রের উপরেই ভরসা গেরুয়া শিবিরের, রয়েছে বড় চমক

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এই আট ভারতীয় নৌ সেনা দাহরা গ্লোবাল নামক একটা বেসরকারি কোম্পানিতে কর্মরত ছিলেন। ওই সংস্থা কাতার সেনাকে প্রশিক্ষণের কাজ করত। ২০২২ সালের অগাস্টে কাতার গোয়েন্দা সংস্থা জানায়, এনারা ইজরায়েলের হয়ে গুপ্তচরবৃত্তি করছেন। এরপরই গ্রেফতার করা হয় তাদের। যদিও তারা ঠিক কী গুপ্তচরবৃত্তি করতেন তার কোনও প্রমাণই নাকি কাতার গোয়েন্দা সংস্থা প্রকাশ্যে আনতে পারেনি। তা সত্বেও ঐ ৮ সেনার মৃত্যুদণ্ড দেয় কাতার আদালত।

আরও পড়ুন : মন্দির সংস্করণ থেকে ওভারব্রীজ, মোট ১৩টি প্রকল্প নিয়ে বড় ঘোষণা সৌমিত্র খাঁয়ের, লাভবান হবে বিষ্ণুপুর

এখানে বলে রাখা ভালো, কাতার, ভারতে প্রাকৃতিক গ্যাসের প্রধান সরবরাহকারী। সেখানে প্রায় আট লাখ ভারতীয় কাজ করেন। দুই দেশের মধ্যে সবসময়ই ভালো সম্পর্ক রয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে কাতার আদালতের এই সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের জন্য আপিল জানায় ভারত সরকার। এবং অবশেষে মৃত্যুদণ্ডের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে কাতার সরকার। ক্যাপ্টেন নভতেজ সিং, ক্যাপ্টেন বীরেন্দ্র কুমার বর্মা, ক্যাপ্টেন সৌরভ বশিষ্ঠ, কমান্ডার অমিত নাগপাল, কমান্ডার পূর্ণেন্দু তিওয়ারি, কমান্ডার সুগুণাকর পাকালা, কমান্ডার সঞ্জীব গুপ্তা এবং নাবিক রাজেশ।