দেওয়া হবে না টাকা, অথচ এই দেশ থেকে তেল কিনবে ভারত! অবাক করবে পুরো ঘটনা

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক: এবার একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ খবর সামনে এসেছে। এই প্রসঙ্গে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে, ভারত (India) ও ভেনেজুয়েলার (Venezuela) মধ্যে এমন একটি চুক্তি হচ্ছে, যার কারণে ওই দেশ ভারতে তেল সরবরাহ করতে রাজি হয়েছে। উল্লেখ্য যে, ওই দেশটিতে তেলের বিপুল ভাণ্ডার রয়েছে। জানা গিয়েছে, ভেনেজুয়েলা পেন্ডিং ডিভিডেন্ড-এর বিনিময়ে ভারতীয় তেল কোম্পানি ONGC Videsh Ltd (OVL)-কে তেল সরবরাহ করতে সম্মত হয়েছে। এই বিষয়ে পেট্রোলিয়াম সচিব পঙ্কজ জৈন জানিয়েছেন, “OVL-এর বকেয়া পাওনার বদলে তারা আমাদের কিছু তেল দিতে রাজি হয়েছে। আমরা উত্তোলনের তারিখের জন্য অপেক্ষা করছি।”

তথ্য অনুযায়ী, ভারতের শীর্ষস্থানীয় তেল কোম্পানি অয়েল অ্যান্ড ন্যাচারাল গ্যাস কর্পোরেশন (ONGC) বিদেশ লিমিটেড তার লভ্যাংশের বিনিময়ে দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ভেনেজুয়েলা থেকে তেল কেনার জন্য আলোচনা করছে। রিপোর্ট অনুযায়ী, ONGC-র প্রায় ৬০৯ মিলিয়ন ডলার মূল্যের লভ্যাংশ ভেনেজুয়েলায় আটকে আছে। বিষয়টির সাথে যুক্ত দু’জন জানিয়েছেন যে, ONGC তার আটকে থাকা লভ্যাংশের বিনিময়ে ভেনেজুয়েলা থেকে তেল কেনার জন্য আলোচনা করছে। উল্লেখ্য যে, ২০২৩ সালের অক্টোবরে ভেনেজুয়েলা সরকার এবং বিরোধী দলগুলির মধ্যে চুক্তির পর আমেরিকা ভেনেজুয়েলার তেল এবং গ্যাসের ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞাগুলি শেষ করার পরে ONGC এবং ভেনেজুয়েলার মধ্যে তেল কেনার বিষয়ে আলোচনা সম্ভব হয়েছে।

India will buy oil from this country without paying money

২০১৯ সাল থেকে তেল ও গ্যাসের ওপর নিষেধাজ্ঞা ছিল: জানিয়ে রাখি, ভেনেজুয়েলার তেল ও গ্যাসের ওপর ২০১৯ সাল থেকে নিষেধাজ্ঞা ছিল। ওই নিষেধাজ্ঞার আগে ভেনেজুয়েলা ছিল ভারতের পঞ্চম বৃহত্তম তেল সরবরাহকারী। এদিকে, ভেনেজুয়েলার সাথে তেল চুক্তি ভারতের জন্যও গুরুত্বপূর্ণ। কারণ ভারত বিশ্বের বৃহত্তম তেল ক্রেতা। ভারত শুরু থেকেই বলে আসছে যেখান থেকে সস্তায় তেল পাওয়া যাবে সেখান থেকেই তা কেনা হবে। এমন পরিস্থিতিতে লভ্যাংশের বিনিময়ে ভেনেজুয়েলা থেকে তেল পাওয়া গেলে ভারতের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভও বাড়বে।

আরও পড়ুন: প্রথম চাকরিতেই বাজিমাত সৌরভ কন্যার! কয়েক লক্ষের বেতন পাবেন সানা, জানলে চমকে উঠবেন

ভেনেজুয়েলায় ৬০০ মিলিয়ন ডলারের লভ্যাংশ আটকে আছে: মূলত, ভেনেজুয়েলার পেট্রোলিওস ডি ভেনিজুয়েলা এসএ-এর সান ক্রিস্টোবাল প্রকল্পেও ভারতের একটি বিনিয়োগ রয়েছে। মিডিয়া রিপোর্টে, ONGC Videsh Limited-এর একজন মুখপাত্রও নিশ্চিত করেছেন যে, সান ক্রিস্টোবাল প্রকল্পে কোম্পানির প্রায় ৬০০ মিলিয়ন ডলারের লভ্যাংশ পাওনা রয়েছে। তিনি বলেন, মার্কিন নিষেধাজ্ঞা শিথিল করার পর কোম্পানিটি লভ্যাংশের বিনিময়ে তেল কেনার জন্য আলোচনা করছে।

আরও পড়ুন: Airtel-Vi-র হয়ে গেল “Moye Moye”! ফের Free Internet, Call-এর অপশন শুরু করল Jio

ভেনেজুয়েলায় সবচেয়ে বেশি তেলের ভাণ্ডার রয়েছে: অর্গানাইজেশন অফ পেট্রোলিয়াম এক্সপোর্টিং কান্ট্রিজ (OPEC)-এর সদস্য ভেনেজুয়েলায় বিশ্বের বৃহত্তম তেলের ভাণ্ডার রয়েছে। কমোডিটি ইনসাইট ওয়েবসাইট এসএন্ডপি অনুসারে, ভেনেজুয়েলার বর্তমান উৎপাদন ক্ষমতা প্রতিদিন ৮ থেকে ৮.৫ লক্ষ ব্যারেল। যেখানে বর্তমানে উৎপাদন হচ্ছে প্রতিদিন প্রায় ৭.৫ লক্ষ ব্যারেল। আমেরিকার নিষেধাজ্ঞা আরোপের আগে ভারত ভেনেজুয়েলা থেকে প্রতিদিন প্রায় তিন লক্ষ ব্যারেল তেল কিনত। ভারত সরকারের সরকারি তথ্য অনুযায়ী, ২০১৯ সাল পর্যন্ত ভেনেজুয়েলা ভারতে পঞ্চম বৃহত্তম তেল সরবরাহকারী ছিল।

Sayak Panda
Sayak Panda

সায়ক পন্ডা, মেদিনীপুর কলেজ (অটোনমাস) থেকে মাস কমিউনিকেশন এবং সাংবাদিকতার পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স করার পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর