এবার লাফিয়ে বাড়বে উৎপাদন! মোদীর ভূয়সী প্রশংসা করে গুজরাটে ৩৮,২০০ কোটির বিনিয়োগ মারুতি সুজুকির

বাংলা হান্ট ডেস্ক: দেশের (India) গাড়ি প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলির মধ্যে অন্যতম হল মারুতি সুজুকি (Maruti Suzuki)। এবার, ওই সংস্থার তরফে গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা করা হয়েছে। জানা গিয়েছে যে, সংস্থাটি গুজরাটে সুজুকি মোটরে ২.৫ লক্ষ ইউনিট বৈদ্যুতিক গাড়ির প্রোডাকশন ক্যাপাসিটি স্থাপনে ৩,২০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে এবং এর পাশাপাশি ১ মিলিয়ন ইউনিট প্রোডাকশন ক্যাপাসিটি স্থাপনে মারুতি সুজুকি ৩৫,০০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে।

   

এই প্রসঙ্গে সুজুকি মোটর কর্পোরেশনের গ্লোবাল সিইও তোশিহিরো সুজুকি জানিয়েছেন যে, মারুতি সুজুকি গুজরাটে ১.২৫ মিলিয়ন ইউনিট প্রোডাকশন ক্যাপাসিটির জন্য ৩৮,২০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে। মূলত, ভাইব্রেন্ট গুজরাটের দশম গ্লোবাল সামিটে ভাষণ দিতে গিয়ে, সুজুকি প্রধানমন্ত্রী শ্রী মোদীর “প্রগতিশীল দৃষ্টিভঙ্গি” এবং ভারতের বৃদ্ধির জন্য ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, “আমরা ভবিষ্যতে বিনিয়োগ করব। প্রথমত, সুজুকি গ্রুপের প্রথম ব্যাটারি বৈদ্যুতিক গাড়ি বছরের শেষ নাগাদ গুজরাটের সুজুকি মোটর থেকে আনা হবে। আমরা এই মডেলটি শুধুমাত্র ভারতে বিক্রি করার পরিকল্পনা করছি না। বরং, তা জাপান এবং ইউরোপিয় দেশেও রপ্তানি করব।”

Maruti Suzuki invests Rs 38,200 crore in Gujarat

দ্বিতীয়ত, কোম্পানিটি ভবিষ্যতে তার BEV উৎপাদন সম্প্রসারণ করবে। সুজুকি গ্রুপ নতুন চতুর্থ উৎপাদন লাইন যুক্ত করতে গুজরাটের সুজুকি মোটরে ৩,২০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে। যা প্রতি বছর ২.৫ লক্ষ ইউনিট উৎপাদনে সক্ষম হবে। যার ফলে গুজরাটে সুজুকি মোটরের বার্ষিক উৎপাদন ক্যাপাসিটি বর্তমানে থাকা ৭.৫ লক্ষ ইউনিট থেকে বৃদ্ধি পেয়ে ১০ লক্ষ ইউনিটে পৌঁছে যাবে।

আরও পড়ুন: “আমি ভগবান রাম এবং হনুমানের ভক্ত”, অবশেষে “রাম সিয়া রাম” গানের প্রসঙ্গে জানালেন কেশব মহারাজ

এর পাশাপাশি তোশিহিরো সুজুকি মনে করিয়ে দেন যে, নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে ভারতীয় অটোমোবাইল বাজার ক্রমশ প্রসারিত হচ্ছে। ফলস্বরূপ, ভারত বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম বাজার হয়ে উঠেছে। তিনি বলেন, “দশ বছর আগের তুলনায় আমরা ভারতে উৎপাদন ক্ষমতাও উল্লেখযোগ্যভাবে বাড়িয়েছি। আমরা চলতি অর্থবর্ষে গাড়ি উৎপাদনে ১.৭ গুণ, রপ্তানিতে ২.৬ গুণ বৃদ্ধি আশা করছি।” এছাড়াও, তিনি বলেন, “আমরা গুজরাটে দ্বিতীয় প্ল্যান্ট নির্মাণের জন্য ৩৫,০০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করব। যা প্রতি বছর আরও ১ মিলিয়ন ইউনিট উৎপাদন করবে।” এর ফলে গুজরাটে বার্ষিক উৎপাদন ক্ষমতা হবে ২ মিলিয়ন ইউনিট। অর্থাৎ, এসএমজিতে ১ মিলিয়ন ইউনিট এবং দ্বিতীয় নতুন প্ল্যান্টে ১ মিলিয়ন ইউনিট।”

আরও পড়ুন: রাতের অন্ধকারে ঢুকেছিল ভারতে! শিয়ালদহ স্টেশন থেকে পাকড়াও সন্দেহজনক রোহিঙ্গা

এদিকে, বৈদ্যুতিক গাড়ি ছাড়াও, মারুতি সুজুকি গ্রিনহাউস গ্যাসের নির্গমন কমাতে বিভিন্ন বিকল্পের দিকে নজর দিচ্ছে। তোশিহিরো সুজুকি জানিয়েছেন, “আমরা যতটা পারি গ্রিনহাউস গ্যাসের নির্গমন হ্রাসের বিষয়ে নজর দেবো। অর্থাৎ, বৈদ্যুতিক গাড়ি ছাড়াও আমরা সিএনজি, বায়োগ্যাস, বায়ো ইথানল এবং গ্রিন হাইড্রোজেনের মতো একাধিক বিকল্প উপলব্ধ করব। আমরা গোবর থেকে বায়োগ্যাস উৎপাদনও শুরু করব। ন্যাশনাল ডেইরি ডেভেলপমেন্ট বোর্ড এবং বনাস ডেইরির সাথে সুজুকি ইতিমধ্যেই গুজরাটে চতুর্থ বায়োগ্যাস প্ল্যান্ট নির্মাণ শুরু করেছে।”