পাকিস্তানের মেয়ে এবার বাংলায়, বিয়ে কলকাতার ছেলের সাথে! ওয়াঘা সীমান্তে হল বধূবরণ

বাংলাহান্ট ডেস্ক : ভালোবাসার মানুষের টানে ফের একবার সীমান্ত পার করে ভারতে এলেন পাকিস্তানের তরুণী। আর সব থেকে বড় কথা এই তরুণীর ভালোবাসার মানুষ থাকেন কলকাতায়। সম্প্রতি সমাজ মাধ্যমে ভারতের প্রেমিক ও পাকিস্তানের প্রেমিকার প্রেমের গল্প ভাইরাল হয়েছে। ওয়াঘা সীমান্ত পার করে পাকিস্তানি তরুণী তার হবু বরের সাথে দেখা করতে এলেন ভারতে।

   

জানা গেছে এই পাকিস্তানি তরুণীর নাম জাভরিয়া খানম। ভারতে হবু বরের সাথে দেখা করার জন্য ৪৫ দিনের ভিসা নিয়ে জাভরিয়া আটারি-ওয়াঘা সীমান্ত দিয়ে এসেছেন ভারতে। তরুণীর হবু বর সমীর খান তাকে স্বাগত জানাতে যান সেখানে। গত পাঁচ বছর ধরে সম্পর্কে রয়েছেন সমীর ও জাভরিয়া। ২০২৪ সালের প্রথম দিকে তাদের বিয়ে হওয়ার কথা রয়েছে।

আরোও পড়ুন: ভারত “অপ্রতিরোধ্য” হয়ে উঠতেই চিনের দিন শেষ! সামনে এল চমকপ্রদ রিপোর্ট

অনেক আগেই এই দুজনের বাগদান পর্ব সম্পন্ন হয়েছে। অমৃতসরের আটারি  সীমান্তে সমীরের সাথে সাক্ষাৎ করে এখন কলকাতায় আসছেন জাভরিয়া ও তার বাবা। মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী খবর, জাভরিয়ার হবু বর সমীর খান আদতে পাঞ্জাবের গুরুদাসপুরের বাসিন্দা। কিন্তু বর্তমানে সমীর থাকেন বাংলায়। তাই এদের বিয়ে হতে চলেছে কলকাতায়।

আরোও পড়ুন : “দিদিকে হিংসা করি”… মমতাকে নিয়ে বিরাট মন্তব্য সলমনের; উত্তাল কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসব

জানা গেছে কলকাতায় ইসলামিক মতে বিয়ে করবেন সমীর ও জাভরিয়া। সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, এই পাকিস্তানি তরুণী বিয়ের পর তার ভিসার মেয়াদ বৃদ্ধি করতে ইচ্ছুক। জাভরিয়া এর আগে দুবার ভারতের ভিসার জন্য আবেদন করেন। কিন্তু প্রত্যেকবার তার ভিসার আবেদন খারিজ হয়ে যায়। অবশেষে ভারত সরকারের পক্ষ থেকে পাকিস্তানি এই তরুণীকে বিয়ে করার জন্য ৪৫ দিনের ভিসা দেওয়া হয়েছে।

দু দুবার জাভরিয়ার ভিসার আবেদন খারিজ হয়ে যাওয়ায় সমীরের পরিবার যোগাযোগ করে সমাজকর্মী ও সাংবাদিক মকবুল আহমেদ ওয়াসি কাদিয়ানের সঙ্গে। মকবুল এর আগে বহু পাকিস্তানি বধূকে ভারতের ভিসা পাইয়ে দিতে সাহায্য করেছেন। এরপর মকবুলের প্রচেষ্টায় অবশেষে ৪৫ দিনের ভিসা পান জাভরিয়া।