“কেউ হস্তক্ষেপ করলে…”, মালদ্বীপের পাশে দাঁড়িয়ে কড়া বার্তা জিনপিংয়ের! নিশানায় ভারত? জোর জল্পনা

বাংলা হান্ট ডেস্ক: বর্তমান সময়ে ভারত-মালদ্বীপ (India-Maldives) বিতর্কের আবহে সরগরম প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্র। যদিও, এই উত্তেজনার আগুনের মধ্যেই ঘি ঢালছে চিন (China)। ইতিমধ্যেই ভারতের নাম না নিয়ে চিন বলেছে, কোনো দেশ মালদ্বীপের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করার চেষ্টা করলে তার বিরোধিতা করা হবে।

   

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, সম্প্রতি মালদ্বীপের রাষ্ট্রপতি মোহাম্মদ মুইজ্জু চিন সফরে গিয়েছেন। যেখানে তিনি গত বুধবার অর্থাৎ ১০ জানুয়ারি চিনা রাষ্ট্রপতি শি জিনপিংয়ের সাথে দেখা করেন। ওই সময় দুই দেশের মধ্যে পর্যটনক্ষেত্রে সহযোগিতা সহ ২০ টি গুরুত্বপূর্ণ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয় বলে জানা গিয়েছে। কিন্তু এই বৈঠকের পর একটি বিবৃতিও সামনে এসেছে। যেখানে বলা হয়েছে যে, মালদ্বীপ তার দেশে চিন বিরোধী কার্যকলাপ হতে দেবে না। পাশাপাশি, মালদ্বীপ এক চিন নীতিও (One China Policy) অনুসরণ করবে।

Standing next to Maldives, Xi Jinping gave a strong message

মালদ্বীপের পাশে দাঁড়িয়েছে চিন: এদিকে, চিনের মুখপত্র হিসেবে বিবেচিত গ্লোবাল টাইমস চিন ও মালদ্বীপের মধ্যে জারি করা একটি যৌথ বিবৃতিকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছে যে, চিন মালদ্বীপের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে বৈদেশিক হস্তক্ষেপের কঠোর বিরোধিতা করবে। এছাড়াও, সবসময় মালদ্বীপের পাশে দাঁড়াবে।

আরও পড়ুন: শক্তিশালী পাসপোর্টের তালিকায় উন্নতি ভারতের, শোচনীয় অবস্থা পাকিস্তানের! রইল লিস্ট

শুধু তাই নয়, ওই রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে, চিন জানিয়েছে তারা জাতীয় সার্বভৌমত্ব ও জাতীয় মর্যাদা বজায় রাখতে মালদ্বীপের প্রচেষ্টাকে জোরালোভাবে সমর্থন করবে। যদিও এই যৌথ বিবৃতিতে ভারতের কোনো উল্লেখ ছিল না। তবে, এই বিবৃতিটি এমন একটা সময়ে সামনে এসেছে যখন ভারত ও মালদ্বীপের মধ্যে সম্পর্ক অনেকটাই প্রভাবিত হয়েছে।

আরও পড়ুন: শেয়ার বাজার চাঙ্গা হতেই শক্তি বৃদ্ধি ভারতীয় মুদ্রার! ডলারের তুলনায় এতটা বৃদ্ধি পেল টাকা

কি জানিয়েছেন শি জিনপিং: রিপোর্ট অনুযায়ী, চিনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং জানিয়েছেন, চিন মালদ্বীপের সাথে শাসনের অভিজ্ঞতা আদানপ্রদান করতে এবং উন্নয়ন কৌশলের সমন্বয় জোরদার করতে ও উচ্চমানের বেল্ট অ্যান্ড রোড সহযোগিতাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি চিন-মালদ্বীপের বন্ধুত্বকে শক্তিশালী করে একটি নতুন মানদন্ড স্থাপন করতে প্রস্তুত। তিনি বলেন, চিন মালদ্বীপের আরও শিক্ষার্থীদের চিনে পড়াশোনা করতে সহায়তা করবে এবং দুই দেশের মধ্যে আরও সরাসরি ফ্লাইটের বিস্তার ঘটবে।

সম্পর্কিত খবর