ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি! ব্রিটেনে না খেতে পেয়ে মরবে ব্রিটিশরা, সতর্কতা জারি সরকারের

বাংলা হান্ট ডেস্ক: নতুন বছরের আগেই এবার ব্রিটেনে (Britain) একটি বড় সতর্কতা জারি করা হয়েছে। যেটি সম্পর্কে জানার পর অবাক হয়ে যাবেন সকলে। শুধু তাই নয়, অনেকে মনে করছেন যে এহেন সতর্কতা আগামী দিনে সমগ্ৰ বিশ্বকেও ভাবিয়ে তুলবে। মূলত, আগামী বছরে অর্থাৎ, ২০২৪ সালে ব্রিটেনে খাদ্য সঙ্কটের (Food Crisis) সম্ভাবনা রয়েছে।

   

বিশেষজ্ঞদের মতে, বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন সংঘাত, পরিবহণ সমস্যা এবং জলবায়ুগত পরিবর্তন এই ভয়াবহ পরিস্থিতির জন্য দায়ী। এছাড়াও, আগামী মাসের শেষের দিকে, EU অর্থাৎ ইউরোপিয় ইউনিয়ন থেকে ব্রিটেনে আসা খাবারের ক্ষেত্রে নতুন চেক করা হবে। যা সমস্যা আরও বাড়িয়ে দেবে।

The British will die without food, government has issued a warning

এক্সপ্রেস ডট ইউকে-র এক রিপোর্টে বলা হয়েছে, কুইন্স ইউনিভার্সিটি বেলফাস্টের অধ্যাপক ক্রিস এলিয়ট সম্ভাব্য খাদ্য ঘাটতি সম্পর্কে জানিয়েছেন যে, খাদ্যদ্রব্যের মধ্যে ফল ও শাকসবজি সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

আরও পড়ুন: এবার ভয়ঙ্কর জঙ্গি হানা পেশোয়ারে! বহু হতাহতের আশঙ্কা, ভয়ে তটস্থ গোটা পাকিস্তান

তাঁর মতে, “আমার অনুমান হল, যেহেতু আমরা ইতিমধ্যে ২০২৩ সালের বেশ কয়েক মাস ধরে কিছু সুপারমার্কেটে খালি শেলফ দেখেছি, এমতাবস্থায় আমরা যত এগিয়ে যাবো এই বিষয়টি ততো স্পষ্ট হবে। এটি ক্রয়ক্ষমতার পাশাপাশি সহজলভ্যতার বিষয়টি সম্পর্কেও হবে। ২০২৪ সালে সুপারমার্কেটে তাজা পণ্যের শেলফগুলি খালি থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।”

আরও পড়ুন: গতি বাড়বে ন্যশানাল হাইওয়েতে, বড় পদক্ষেপ নিচ্ছে সরকার! এবার থেকে এত স্পিডে চালানো যাবে গাড়ি

প্রফেসর এলিয়ট আরও বলেন, “আমাদের খাদ্য ঘাটতি অন্যান্য দেশের খাদ্য নিরাপত্তার কারণে প্রভাবিত হতে পারে।” এমন পরিস্থিতিতে, এই সঙ্কট মোকাবিলায় দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা না নেওয়ায় সরকারের সমালোচনা করেন তিনি। প্রফেসর এলিয়ট বলেন যে, ব্রিটেন মূলত দুগ্ধ, পোল্ট্রি এবং ডিম উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ ছিল। কিন্তু খাদ্য শিল্পের অন্যান্য ক্ষেত্রগুলির পতনের ফলে এই ক্ষেত্র এখন ব্যর্থ হচ্ছে।