ম্যাচ ফিক্সিং করে গিয়েছেন জেলে! বিশ্বকাপের আগে ভিসা পাচ্ছেন না পাকিস্তানের এই খেলোয়াড়, সঙ্কটে টিম

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক: আসন্ন ICC T20 বিশ্বকাপের (ICC Men’s T20 World Cup) আগে অবসর থেকে ফিরে আসা পাকিস্তানের (Pakistan) ফাস্ট বোলার মোহাম্মদ আমিরকে (Mohammad Amir) নিয়ে নিরন্তর আলোচনা চলছে। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে স্পট ফিক্সিংয়ে দোষী সাব্যস্ত হয়ে নিষেধাজ্ঞার মুখোমুখি হওয়ার পর দল থেকে বাদ পড়ার পরে এবার তাঁর বিশ্বকাপ খেলার স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে।

এদিকে, আমিরকে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে (Ireland) T20 দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। যদিও, দলের সাথে ভিসা সংক্রান্ত সমস্যার কারণে মঙ্গলবার ৩ ম্যাচের T20 সিরিজের জন্য তিনি আয়ারল্যান্ডে যেতে পারবেন না। এই প্রসঙ্গে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (PCB) একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে যে, দলের বাকি সদস্যরা আয়ারল্যান্ডের ভিসা পেয়েছেন।

This Pakistani player is not getting visa before the World Cup.

উল্লেখ্য যে, ২০১০ সালের স্পট ফিক্সিং মামলায় জেলের সাজা ভোগ করার কারণে আমিরের ভিসা বিলম্বিত হচ্ছে। এই প্রসঙ্গে সূত্রটি জানিয়েছে, “২০১০ সালের স্পট-ফিক্সিং কেলেঙ্কারির কারণে এবং পরবর্তীতে জেল ও নিষেধাজ্ঞার কারণে, তাঁকে ভিসা দেওয়ার প্রক্রিয়া এখনও চলছে।”

আরও পড়ুন: মদ্যপান না করেও পেতে পারেন ড্রিংক অ্যান্ড ড্রাইভের চালান! আগেভাগেই হয়ে যান সতর্ক

সূত্রটি বলেছে যে, ২০১৮ সালে যখন পাকিস্তান আয়ারল্যান্ড এবং ইংল্যান্ড সফর করেছিল তখন পিসিবি একই পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছিল। যদিও, পরে আমিরকে ভিসা দেওয়া হয়। সূত্রটি জানিয়েছে, “আমরা আশা করছি দু’-এক দিনের মধ্যেই তিনি ভিসা পাবেন এবং পরে দলে যোগ দিতে পারবেন।” জানিয়ে রাখি যে, আগামী ১০ মে আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম T20 আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলবে পাকিস্তানকে।

আরও পড়ুন: Jio-Airtel পাবে না পাত্তা! BSNL আনল ১৬০ দিনের প্ল্যান, আনলিমিটেড কলিংয়ের সাথে মিলবে 320 GB ডেটা

আয়ারল্যান্ড এবং ইংল্যান্ড সফরের জন্য পাকিস্তানের T20 স্কোয়াড: বাবর আজম (অধিনায়ক), আবরার আহমেদ, আজম খান, ফখর জামান, হারিস রউফ, হাসান আলি, ইফতিখার আহমেদ, ইমাদ ওয়াসিম, আব্বাস আফ্রিদি, মোহাম্মদ আমির, মোহাম্মদ রিজওয়ান, ইরফান খান নিয়াজ, নাসিম শাহ, সাঈম আইয়ুব, সালমান আলী আগা, শাদাব খান, শাহীন আফ্রিদি, উসমান খান।

Sayak Panda
Sayak Panda

সায়ক পন্ডা, মেদিনীপুর কলেজ (অটোনমাস) থেকে মাস কমিউনিকেশন এবং সাংবাদিকতার পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স করার পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর